সংবাদ শিরোনাম :
শায়েস্তাগঞ্জ পৌর নির্বাচন : দিন-তারিখ নেই, প্রার্থীরা সরব ।

শায়েস্তাগঞ্জ পৌর নির্বাচন : দিন-তারিখ নেই, প্রার্থীরা সরব ।

শায়েস্তাগঞ্জ পৌর নির্বাচন : দিন-তারিখ নেই, প্রার্থীরা সরব

লোকালয় ডেস্কঃ ১৯৯৮ সালে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ৮ নং বুল্লা ইউনিয়ন ও ৯ নং নিজামপুর ইউনিয়ন এবং চুনারুঘাট উপজেলার ৭ নং উবাহাটা ইউনিয়নের অংশ বিশেষসহ মােট ১০.৪০ বর্গ কি.মি. এলাকা নিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা গঠন করার পর একটি উপ-নির্বাচন ও ৪টি সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ডিসেম্বর/জানুয়ারি শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

হবিগঞ্জ জেলার ৬টি পৌরসভার মধ্যে ৫টিতে সর্বশেষ নির্বাচন হয় ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর। সে হিসেবে চলতি বছরের ডিসেম্বরে নির্বাচন হওয়ার কথা। তবে নির্বাচনী দিন-ক্ষণ এখনও ঠিক না হলেও মুখের হিসেবে দিন গুনছেন শায়েস্তাগঞ্জ পৌর এলাকার মানুষ। সেই সাথে তৃণমূল পর্যায়ে মাঠে সরব হয়ে উঠছেন কাউন্সিলর, নারী কাউন্সিলর এবং মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি থেকে মনােনয়ন প্রত্যাশীরা। যার যার অবস্থান থেকে সবাই জোর প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

শুধু তাই নয়, প্রার্থীরা আলোচনায় আসার জন্য বিভিন্নভাবে উঠান বৈঠক, নেতাদের সাথে সাক্ষাৎ, দলীয়ভাবে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য তদবিরও শুরু করে দিয়েছেন।

সরেজমিনে সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এ পৌরসভায় নৌকার মাঝি হতে জোর প্রচারণায় রয়েছেন, ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে বিজয়ী বর্তমান মেয়র ছালেক মিয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আতাউর রহমান মাসুক, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ফজল উদ্দিন তালুকদার। এ ছাড়াও কৌশলে নৌকার মাঝি হতে কাজ করছেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদউজ্জামান মাসুক, হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ সরদার, আওয়ামী লীগ ও ব্যকসের নেতা আবুল কাশেম শিবলু।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি থেকে নির্বাচন করার সম্ভাবনা রয়েছে হেভিওয়েট প্রার্থী এম এস আহমেদ অলি। যিনি বিগত নির্বাচনে মাত্র ৮৩ ভোটে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ছালেক মিয়ার কাছে পরাজিত হয়েছিলেন। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশায় রয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর আব্দুল মজিদ। সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে গতবারের ন্যায় এবারও নির্বাচন করতে পারেন প্রভাষক মো. জালাল উদ্দিন রুমি।

পৌরসভার বিভিন্ন এলাকার লােকজন বলছেন, এখানে নৌকার মনােনয়ন পাওয়া মানেই পরবর্তী মেয়র হওয়া। তাই সমর্থন নিজের পক্ষে নিতে অনেকেই মাঠ পর্যায়ে সরব হয়ে উঠেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com