শহিদুলকে নির্যাতন করা হয়েছে কিনা পরীক্ষার নির্দেশ হাইকোর্টের

শহিদুলকে নির্যাতন করা হয়েছে কিনা পরীক্ষার নির্দেশ হাইকোর্টের

নিজস্ব প্রতিবেদক: আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত আলোকচিত্রী ও মানবাধিকার কর্মী শহিদুল আলমকে পুলিশি হেফাজতে নির্যাতন করা হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে তার শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন। আগামী সোমবারের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিবকে এ প্রতিবেদন জমা দিতে হবে।

রোববার রাতে ধানমন্ডির বাসা থেকে দৃক গ্যালারির প্রতিষ্ঠাতা এবং পাঠশালা সাউথ এশিয়ান মিডিয়া ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান শহিদুল আলমকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবি। এর আগে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরায় সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন তিনি।

পুলিশ জানায়, শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেয়ায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়েছে। পরে সোমবার তার বিরুদ্ধে রমনা থানায় আইসিটি আইনে মামলা করা হয়।

একই দিনে ডিবি পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আরমান আলী এই আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আলোকচিত্রীকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। বিচারক মো. আসাদুজ্জামান নূর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মঙ্গলবার শহিদুল আলমের স্ত্রী রেহনুমা আহমেদ রিমান্ডের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করেন। হাইকোর্ট রিটের শুনানি নিয়ে শহিদুল আলমকে চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পাঠাতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়। সেই সঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়।

বৃহস্পতিবার জমা দেয়া প্রতিবেদন দেখে আদালত বলে, শহিদুল আলমের স্বাস্থ্যগত অবস্থা ভালো আছে। প্রতিবেদনে অস্বাভাবিক কিছু আসেনি।

এসময় আসামিপক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার সারা হোসনে বলেন, প্রতিবেদনে মানসিক নির্যাতনের বিষয়ে কোনো তথ্য নেই। ‘হেফাজতে মৃত্যু ও নিবারণ আইন’ অনুযায়ী শহিদুল আলমের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার আবেদন জানান তিনি। খবর: ইউএনবি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com