রাম মন্দির নির্মাণ না করলে ক্ষমতা হারাবে বিজেপি: শিব সেনা

রাম মন্দির নির্মাণ না করলে ক্ষমতা হারাবে বিজেপি: শিব সেনা

রাম মন্দির নির্মাণ না করলে ক্ষমতা হারাবে বিজেপি: শিব সেনা
রাম মন্দির নির্মাণ না করলে ক্ষমতা হারাবে বিজেপি: শিব সেনা

লোকালয় ডেস্কঃ ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী রাজনৈতিক দল ‘শিব সেনা’র প্রধান উদ্ধব ঠাকরে ক্ষমতাসীন দল বিজেপিকে অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণে দ্রুত উদ্যোগ গ্রহণের তাগিদ দিয়েছেন। অবিলম্বে অধ্যাদেশ জারি করে অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করার দাবি জানিয়েছেন তিনি। ক্ষমতাসীন দলকে সতর্ক করে তিনি বলেছেন, রাম মন্দির নির্মাণ করতে ব্যর্থ হলে বিজেপি পরেরবার ক্ষমতায় আসতে পারবে না। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন থেকে এ কথা জানা গেছে।

ভারতে লোকসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততোই হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে জোরালো হচ্ছে রাম মন্দির নির্মাণের দাবি। নিজেদের শরিক দলগুলোর কাছেও ক্রমশ কোনঠাসা হতে শুরু করেছে বিজেপি। শিবসেনা থেকে শুরু করে বিশ্বহিন্দু পরিষদ সকলেই একটি দাবিতে সোচ্চার হয়েছে, আগে অযোধ্যায় রামমন্দির তৈরি করতে হবে। বলা চলে এই রামমন্দির তৈরির উপরই নির্ভর করছে বিজেপি ২০১৯–এর লোকসভা নির্বাচনের ভবিষ্যত।

রবিবার সকালে শিব সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে অযোধ্যায় বাবরিস্থলে রাম লালা দর্শন করেন। পরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন,  ‘সবদিক খতিয়ে দেখছে বিজেপি। কেন তারা এখনও কোনও সমাধান খুঁজে পেল না? আমি এখানে এসেছি শুধু বিজেপি-কে এটা বলার জন্য যে, তারা হিন্দুদের আবেগ নিয়ে খেলতে পারে না। এই বিজেপি সরকার যথেষ্ট শক্তিশালী। তারা খুব সহজেই এই মন্দির নির্মাণ করতে পারে।’ রাম মন্দির তৈরি না-হলে বিজেপি আগামী নির্বাচনে জিততে পারবে না বলেও সতর্ক করেন শিব সেনা প্রধান।

উদ্ধব আরও বলেন, ‘আমি মানুষের কথা ভেবে এখানে এসেছি। লুকোনো কোনও অ্যাজেন্ডা নেই। কোনও ঘৃণা ছড়াতেও আসিনি। আমরা সবাই রাম মন্দিরের অপেক্ষায় রয়েছি। প্রত্যেক হিন্দু ভগবান রামের জন্মস্থানে তার একটা মন্দির চান। আর হিন্দুত্বের অর্থ, কথা রাখা।’

উল্লেখ্য, ভারতের হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের একাংশের দাবি,১৫২৮ খ্রীষ্টাব্দে যেখানে বাবরি মসজিদ গড়ে তোলা হয়েছিল সেই জায়গাটি ছিল দেবতা রামের জন্মভূমি, তা ভেঙে মসজিদ বানানো হয়৷ ১৯৯২ সালে বিজেপি সরকার ক্ষমতাসীন থাকার সময়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় বাবরি মসজিদ৷ এনিয়ে দাঙ্গায় প্রাণ হারায় ২ হাজার মানুষ৷ এনিয়ে বিরোধ গড়ায় আদালতে। এলাহাবাদ হাই কোর্টে একবার রায় ঘোষণার পরেও তার চূড়ান্ত মীমাংসা হয়নি। ওই রায়ে বিতর্কিত জমিকে বিবদমান তিন পক্ষের মধ্যে তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়। তখন অযোধ্যার বিতর্কিত জমির মামলা চলে যায় শীর্ষ আদালতে। আগামী বছর ওই মামলায় চূড়ান্ত রায় আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। এর আগেই সেখানে রাম মন্দির তৈরিতে চাপ জোরালো করতে চাইছে ভারতের কট্টরপন্থী হিন্দুরা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com