সংবাদ শিরোনাম :
উন্নয়ণশীল দে‌শে উত্তর‌ণের দুর্দান্ত অর্জন ০৭ মার্চ সারা‌দে‌শে উদযাপন কর‌বে পু‌লিশ চুনারুঘাটে জাল টাকাসহ কিশোরগঞ্জের ৩ জন গ্রেফতার। টিকা নিলেন প্রধানমন্ত্রী বানিয়াচং থানা পুলিশের অভিযানে একাধিক চুরি ও ডাকাতি মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার। বিদ্রোহী প্রার্থীদের ছাড় দিচ্ছে আওয়ামী লীগ উদ্দেশ্য ইউপি নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করা। হবিগঞ্জের সাতছড়ি থেকে আটারটি রকেট লাঞ্চার উদ্ধার। চুনারুঘাটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে এক যুবক কে ৫০হাজার টাকা জরিমানা। ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকদের কলম বিরতি। হবিগঞ্জে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে পালিত করেছেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা।
যে ‘ডালের’ কেজি ৫০ লাখ টাকা!

যে ‘ডালের’ কেজি ৫০ লাখ টাকা!

লোকালয় ডেক্স: সুস্বাদু ডাল খেতে কে না ভালোবাসে! ভাতের সঙ্গে সামান্য ডাল হলেই পেটপুরে খাবারটা সেরে নেওয়া যায়। তাই বাংলাদেশের ঘরে ডালের কদর থাকে সব সময়। ডালের মতো গয়নারও চাহিদা রয়েছে এ দেশে। সেই গয়না সোনায় মোড়ানো হলে তো কথাই নেই। এই কদর আর চাহিদার বিষয়কে বিবেচনা করে সোনার বারকে ডালের আকৃতিতে রূপ দেওয়া হয়েছে। দূর থেকে দেখতে মনে হবে মুগ ডাল। কিন্তু হাতে নিয়ে পরীক্ষা করলে বোঝা যাবে যে এই ডাল সোনা দিয়ে তৈরি।

এ ধরনের সোনার প্রায় ছয় কেজি ডাল পাওয়া গেছে সৌমিত্র দত্ত নামে এক ভারতীয়র কাছে। আনুমানিক ২১ বছর বয়সী এই তরুণকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পাওয়া গেছে।

গতকাল রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিমানবন্দরের গ্রিন চ্যানেল থেকে সৌমিত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঢাকা কাস্টম হাউসের একটি দল অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

শুল্ক কর্মকর্তাদের দাবি, সৌমিত্র দত্তের কাছ থেকে পাওয়া। সেই হিসেবে এক কেজি সোনার ডালের মূল্য ৫০ লাখ টাকা। এই ছয় কেজি সোনা সৌমিত্রের কাছে থাকা ওয়াটার ডিস্পেন্সারের কম্প্রেসারের মধ্য থেকে উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা কাস্টম হাউসের উপকমিশনার অথেলো চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে করে সিঙ্গাপুর থেকে ঢাকায় আসেন সৌমিত্র। গ্রিন চ্যানেল পার হওয়ার সময় তাঁকে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সোনা ও অন্যান্য শুল্ক কর আরোপযোগ্য পণ্য থাকার বিষয় অস্বীকার করেন তিনি। এ সময় তাঁর কাছে থাকা একটি ওয়াটার ডিস্পেন্সার উদ্ধার করা হয়। এর কম্প্রেসারের মধ্যে ডালের মতো ছোট আকৃতির বস্তু পাওয়া যায়। এর মোট ওজন ৫ কেজি ৯৫০ গ্রাম। বিশেষ কায়দায় কম্প্রেসারের মধ্যে সোনার ডাল ঢুকিয়ে ঝালাই করে দেওয়া হয়।

সৌমিত্রকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে এই শুল্ক কর্মকর্তা বলেন, সিঙ্গাপুরে বসবাসকারী এক ‘কাকা’ এই ওয়াটার ডিস্পেন্সার সৌমিত্রকে দিয়েছিলেন। এর ভেতর যে সোনা রয়েছে, সেটি তিনি জানতেন না। ঢাকার একটি হোটেলে দুদিন অবস্থান করার কথা ছিল তাঁর। এরপর ওয়াটার ডিস্পেন্সারটি নিয়ে তাঁর নিজ দেশের ফেরার কথা ছিল। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com