মা শিশুকে জন্ম দিলেন দু’বার!

মা শিশুকে জন্ম দিলেন দু’বার!

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের বাসিন্দা, মার্গারেট বোয়েমার। তিনি এই শিশুটির মা। মার্গারেটের গর্ভাবস্থার ১৬ সপ্তাহ পার আল্ট্রাসাউন্ডে চিকিৎসকরা অস্বাভাবিক কিছু লক্ষ্য করেন। চিকিৎসকরা জানান ভ্রূণে ধরা পড়েছে টিউমার। জরুরি অস্ত্রোপচারে ১.৩ পাউন্ড ওজনের টিউমারটি ভ্রূণসহ মাতৃগর্ভ থেকে বের করে নেয়া হয়।
কিন্তু বাদ সাধেন মা। তার সন্তান চাই। উপায়ন্ত না দেখে রোগীর মৃত্যুঝুঁকি মাথায় নিয়ে ফের জরায়ুতে স্থাপন করা হয় ভ্রূণটি। এরপর অসুস্থ মার্গারেট ৩৬ সপ্তাহ পর্যন্ত ছিলেন পূর্ণ বিশ্রামে। কিন্তু গর্ভের শিশুটির দেখা দেয় টেরাটমা রোগ। এই রোগের কারণে ভূমিষ্ঠ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শ্বাসকষ্টজনিত কারণে মৃত্যু হয় নবজাতকের। নিজের জীবণকে বাজি রেখে, টেরাটমার কথা মাথায় রেখে মার্গারেট ফের জন্ম দেন সেই শিশুটির। চিকিৎসকদের নানান দুশ্চিন্তাকে পিছু হটিয়ে জন্ম নেয় সুস্থ এক নবজাতক। এবং জন্মের সময় তার ওজন ছিল সাড়ে পাঁচ পাউন্ড।

শিশুটি জন্মের পর চিকিৎসক জানান, অবিশ্বাস্য ব্যাপারটি হলো টেরাটমা এই রোগে আক্রান্ত প্রতি ৩-৭ লাখ শিশুর মধ্যে জীবিত জন্ম নেয় মাত্র একটি শিশু। আর সেই শিশুর দেখা দেয় নানা শারীরিক সমস্যা। কিন্তু লিনলির মধ্যে ছিল না তার কোনো লক্ষণ। আবার মার্গারেটের টিউমার অপারেশনের সময়েও গর্ভের বাইরে ভ্রূণকে রাখা হয়েছিল প্রায় ২০ মিনিট। তার মায়ের অকৃত্রিম ভালোবাসার কারণেই সকল বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছে শিশুটি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com