সংবাদ শিরোনাম :
মাধবপুরে পিতার সাথে অভিমান করে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা

মাধবপুরে পিতার সাথে অভিমান করে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা

হবিগঞ্জের মাধবপুরে বিষপানে আত্মহননকারী প্রবাসীর স্ত্রী তানিয়া আক্তার (২০) এর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে থেকে জানা যায়, উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের নিজনগর গ্রামের শাহজাহান ভূঁইয়ার কন্যা মোছাঃ তানিয়া আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় মালঞ্চপুর গ্রামের আব্দুল মিয়ার প্রবাসী পুত্র আল আমিনের। বিয়ের পর কিছুদিন তাদের সংসার সুখে কাটলেও মেয়ের একাউন্টে টাকা জমা না রাখায় আলমিনের পরিবারের সাথে মেয়ের বাবার বিরোধ সৃষ্টি হয়।
গত ফেব্রুয়ারি মাসের ১৬ তারিখ ছুটি শেষে আলামিন বিদেশ পাড়ি জমালে তানিয়ার বাবার সাথে তাদের পরিবারের সম্পর্কের অবনতি হয়। এর পর থেকে প্রায় ছয় মাস তানিয়াকে স্বামীর বাড়িতে যেতে দেয়নি তার বাবা। তাছাড়া ওই স্বামী কে ডিভোর্স দিতে প্রতিনিয়ত তানিয়াকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে তার বাবা। তানিয়া তার স্বামীকে ডিভোর্স দিতে অস্বীকৃতি জানালে প্রতিনিয়তই তানিয়াকে শাসন করেন তার পিতা। এছাড়া শাহজান ভুইঞা গত বছর তার আপন ভাগ্নির মেয়েকে দ্বিতীয় বিয়ে করিলে প্রথম স্ত্রী ও মেয়ে তানিয়ার সাথে প্রায়ই খারাপ আচরণ করত। এই বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। বাবার ওই সব আচরণ সহ্য করতে না পেরে গত ২৬ জুলাই রবিবার ভোর রাতে তানিয়া বাবার বাড়িতে বিষপান করে ছটফট করতে থাকলে বাড়ির লোকজন তানিয়া কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করেন।
পরদিন সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তানিয়ার মৃত্যু হয়। তানিয়ার শশুর জানায়, আমার পুত্রবধূ কবে বিষ খেয়েছে এবং কবে মারা গেছে তা আমাদেরকে তানিয়ার পরিবার থেকে জানানো হয়নি।
কাশিমনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মুর্শেদ আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তানিয়াকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। গত সোমবার বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে রাতে তার বাবার পারিবারিক কবরস্থানে তানিয়াকে দাফন করা হয়। এ ঘটনায় সর্বত্র তোলপাড় শুরু হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com