মধ্যরাতে ‘পদ্মা’ তেলের গাড়ি আটকে দিলেন ডাকসু ভিপি নুর

মধ্যরাতে ‘পদ্মা’ তেলের গাড়ি আটকে দিলেন ডাকসু ভিপি নুর

মধ্যরাতে ‘পদ্মা’ তেলের গাড়ি আটকে দিলেন ডাকসু ভিপি নুর
মধ্যরাতে ‘পদ্মা’ তেলের গাড়ি আটকে দিলেন ডাকসু ভিপি নুর

লোকালয় ডেস্কঃ ক্যাম্পাসের সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় একটি তেলবাহী গাড়ি আটকে দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদে (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

নিরাপত্তার স্বার্থে সোমবার (৬ মে) মধ্যরাতে গাড়িটি আটকে দেন নুর। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শেয়ার করা একটি ভিডিও সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, ‘পদ্মা’ লেখা একটি তেলবাহী গাড়ি আটকে দাঁড়িয়ে আছেন ভিপি নুরুল হক নুর। তার সঙ্গে কোটা সংস্কার আন্দোলনের কর্মীরা ছাড়াও বেশ কয়েকজন সাধারণ শিক্ষার্থী ছিলেন।

শিক্ষার্থীদের বলতে শোনা যায়, এই কোম্পানীর তেলবাহী গাড়ি প্রায়ই ক্যাম্পাসের ভিতর দিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে। এর আগেও এক চালককে থামিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছিল।

এসময় ওই গাড়ির চালক ও সহকারী নিজেদের ভুল বুঝতে পারেন। তারা বলেন, অন্য রাস্তায় যানযটের কারণে আজই প্রথম ক্যাম্পাসের সড়ক দিয়ে এসেছি, এরপর আর কখনো তেলের গাড়ি নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করব না।

শিক্ষার্থীরা বলেন, এর আগে একজন ড্রাইভারকে সতর্ক করে দিয়েছিলাম, আজ আপনারা এসেছেন। ভয় পাবেন না, আমরা আপনাদের কোনো ক্ষতি করব না, পরবর্তীতে যাতে কেউ না আসে আজ সেই ব্যবস্থা করব।

তখন শিক্ষার্থীরা ভিপি নুরকে বলেন, এদেরকে বলে লাভ হবে না, প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্বশীল কাউকে বলতে হবে, যাতে এরপর থেকে তেলের কোনো গাড়ি ক্যাম্পাস দিয়ে চলাচল না করে।

এসময় ভিপি নুর ওই কোম্পানিতে কর্মরত ইমরান নামে একজনের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেন। নুর তাকে বলেন, আমরা তেলবাহী পদ্মার একটি গাড়ি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সড়কে আটকে রেখেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যদিয়ে যেখানে ভারি যান চলাচলই নিষিদ্ধ সেখানে তেলের গাড়ি নিয়ে কিভাবে আসে?

নুর বলেন, টিএসসি থেকে নিউ মার্কেট পর্যন্ত পুরো রাস্তা জ্যাম। এখানে মাঝখানে এই যে তেলের গাড়িটি আছে, কোনো একটি দুর্ঘটনা ঘটলে কতটুকু ক্ষয়ক্ষতি হবে সেটি বুঝতে পারছেন? আপনারা ড্রাইভারদের বলে দেননা তেলের গাড়ি গুলো কোন কোন জায়গা দিয়ে যাওয়া যাবে না?

এসময় ভিপি নুর নিজের পরিচয় দিয়ে গাড়িটি শাহবাগ থানায় দিয়ে দিবেন বললে এরপর পদ্মার কোনো গাড়ি ক্যাম্পাসের সড়ক দিয়ে আসবে না মর্মে গাড়িটি ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করেন ইমরান।

তখন নুর বলেন, আপনাদের তেলের যে গাড়িগুলো সড়কে চলে তাদের বলে দিবেন এ রকম বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা ঘনবসতি এলাকার মধ্যে দিয়ে এই গাড়িগুলো যেন না চলাচল করে। আজকের মতো আমরা ছেড়ে দিলাম।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com