ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে অবরুদ্ধ ৫ পুলিশ!

ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে অবরুদ্ধ ৫ পুলিশ!

ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে অবরুদ্ধ ৫ পুলিশ!
ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ‘ফাঁসাতে’ গিয়ে অবরুদ্ধ ৫ পুলিশ!

লোকালয় ডেস্কঃ রোববার রাতে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর বাসস্ট্যান্ডে খোকন মিয়া নামের এক মোবাইল যন্ত্রাংশ ও বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসিয়ে আটকের প্রতিবাদে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী।

এ সময় গৌরীপুর থানার চার এএসআই ও এক পুলিশ কনস্টেবলকে অবরুদ্ধ করে রাখেন স্থানীয়রা। পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তা হলেন- এএসআই আব্দুল আউয়াল, কামরুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, রুহুল আমিন ও কনস্টেবল আল আমিন।

এ ব্যাপারে রামগোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম জিন্নত বলেন, সাদা পোশাকে একদল পুলিশ বাসস্ট্যান্ডে ব্যবসায়ী খোকন মিয়ার দোকানে রাত সাড়ে ৯টার দিকে অভিযান চালায়। প্রথম দফায় খোঁজাখুঁজি করে কিছু পায়নি।

পরে আরেক পুলিশ সদস্য জানায় বৈদ্যুতিক তারের কয়েলের ভেতর মাদক রয়েছে। এরপর তাকে চড়-থাপ্পড় মেরে হাতকড়া পরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন ও এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন।

প্রতিবাদের মুখে তাকে ছেড়ে দিলেও পুলিশকে যেতে দেননি এলাকাবাসী। জনতার ধাওয়া খেয়ে অটোটেম্পু মালিক সমিতির কার্যালয়ে আশ্রয় নিলে সেখানেই তাদের আটকে রাখেন স্থানীয়রা।

পুলিশের নির্যাতনে আহত খোকনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে বলে তার চাচা নিশ্চিত করেন।

এরপর রাত ১২টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(গৌরীপুর সার্কেল) শাখের হোসেন সিদ্দিকী, রামগোপালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল আমিন জনি, রামগোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম মাস্টার উত্তেজিত জনতাকে বিচারের বিষয়ে আশ্বস্ত করায় এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নেন।

রাত দেড়টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(গৌরীপুর সার্কেল) শাখের হোসেন সিদ্দিকী ও গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) গোলাম মাওলা ঘটনাস্থলে তদন্তকাজ পরিচালনা করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com