বাংলাদেশের বিশাল জয়

বাংলাদেশের বিশাল জয়

http://lokaloy24.com/
http://lokaloy24.com/

লোকালয় ডেস্ক:

ব্যাট হাতে লিটন দাস। বল হাতে সাকিব আল হাসান। আর দু’জনের হাত ধরে বাংলাদেশের বিশাল জয়।

হারারেতে সিরিজের ১ম ওয়ানডেতে স্বাগতিক জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে দিয়েছে টাইগাররা। জয় পেয়েছে ১৫৫ রানের বিশাল ব্যবধানে। শুরুতে ব্যাট করে লিটন দাসের সেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ওভারে ২৭৬ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জবাব দিতে নেমে সাকিব আল হাসানের স্পিন ঘূর্ণিতে মাত্র ১২১ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ম্যাচে ৫ উইকেট শিকার করেছেন সাকিব। ফলে মাশরাফিকে টপকে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী এখন এই অলরাউন্ডার। এ জয়ে সিরিজে ১-০তে লিড নিলো টাইগাররা।

রারেতে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। স্কোরবোর্ডে কোন রান তোলার আগেই আউট হয়ে যান দলীয় অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ওয়ানডেতে ক্যারিয়ারের ১৯তম বারের মতো ‘গোল্ডেন ডাক’ মেরে আউট হন তিনি। বাংলাদেশের পক্ষে এখন সবচেয়ে শূন্য রানে আউট হওয়া ব্যাটসম্যানও তামিম।

ব্যাট হাতে আরো একবার ব্যর্থ সাকিব আল হাসান। দলীয় ৩২ রানে আউট হয়ে যান তিনি। তার সংগ্রহ ১৯ রান।

সমান ১৯ রান করে আউট হয়ে যান মিঠুন আলীও। মাত্র ৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন মোসাদ্দেক সৈকত। দলীয় ৭৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে সফররতরা।

সেখান থেকে হাল ধরেন লিটন দাস। সঙ্গ দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দু’জনে মিলে গড়েন ৯৩ রানের জুটি। ৩৩ রান করে আউট হয়ে যান অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ।

একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে ক্যারিয়ারের ৪র্থ সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন দাস। তবে সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ টেকেননি তিনিও। ১০২ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন।

শেষদিকে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন আফিফ হোসেন ধ্রুব ও মেহেদি মিরাজ। দুই তরুণের ৫৮ রানের জুটিতে টাইগারদের স্কোরবোর্ড সমৃদ্ধ হয়। তবে পরপর ২ বলে আউট হয়ে যান দু’জনই। ২৪ বলে ২৬ রান করেন মিরাজ। আর ৩৫ বলে ৪৫ রান করে আউট হন আফিফ।

পরের বলেই আউট হয়ে যান তাসকিনও। তবে রানআউট হওয়ায় হ্যাটট্রিক হলো না জিম্বাবুইয়ান পেসার জংউইর। শেষ ওভারে সাইফুদ্দিনের ব্যাটে চড়ে ২৭৬ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।

জবাব দিতে নেমে শুরুতেই বাংলাদেশের বোলারদের তোপের মুখে পড়ে জিম্বাবুয়ে। দলীয় ৪ রানে অভিষিক্ত ওপেনার মারুমানিকে হারায় তারা। সাইফউদ্দিন তুলে নেন ১ম উইকেট।

স্বাগতিকদের ২য় উইকেটটি তুলে নেন তাসকিন আহমেদ। আর ৩য় উইকেটটি নেন আরেক পেসার শরীফুল ইসলাম।

এরপর বাকি সবকটি উইকেটই তুলে নেন সাকিব আল হাসান। মাঝে জংউই হন রানআউট। আর পেশিতে টান পড়ায় ব্যাট করতে নামেননি মারুমা।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৩য়বারের মতো ৫ উইকেট তুলে নেন সাকিব। রান খরচ করেন ৩০। ওয়ানডেতে তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার ৫/২৯।

দলের বিপদে হাল ধরে সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন লিটন দাস।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com