বাঁশের সাঁকোটি ৭ হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা!

বাঁশের সাঁকোটি ৭ হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা!

বাঁশের সাঁকোটি ৭ হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা!
বাঁশের সাঁকোটি ৭ হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা!

বরগুনা প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের তুজির বাজার সংলগ্ন হলদিয়া খালের একটি বাঁশের সাঁকোই ৭ হাজার মানুষের একমাত্র ভরসা। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রী ও এলাকার মানুষকে এ সাঁকো দিয়ে পারাপার হতে হয়। তিন’যুগের বেশি একটি সেতু নির্মাণের দাবি থাকলেও তা আজও বাস্তবায়ন হয়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলা হলদিয়া ইউনিয়নের তিনদিক হলদিয়া ও চিলার খাল দ্বারা বেষ্টিত ৮নং ওয়ার্ড। ভোটার সংখ্যা ২,৯০০ জন। জনসংখ্যা ৭ হাজারের বেশি। মুইন্নারী চিলা, পূর্বচিলা, উত্তর পশ্চিম চরচিলা, টুঙ্গা ও বাইন্নাপাড়া গ্রাম নিয়ে ৮নং ওয়ার্ড গঠিত। এ গ্রামগুলোর বেশীর ভাগ মানুষ আমতলী উপজেলা শহরে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম তুজির  বাজার।ওই বাজার সংলগ্ন হলদিয়া, রামজি, ঘুঘুমারী,  খালের একটি মাত্র বাঁশের সাঁকো দিয়ে মানুষের পারাপার হতে হয়। এ ওয়ার্ডে নেই কোনও পাকা সড়ক। বৃষ্টির মৌসুমে মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বিশেষ করে নিম্নশ্রেণির মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই।

ছাত্রছাত্রীদের উত্তর পশ্চিম চরচিলা, হলদিয়া গুরুদল, মহিষডাঙ্গা, ভায়লাবুনিয়া, রামজি সরকারি প্রাথমিক ও গুরুদল বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ সাকো পার হয়ে যেতে হয়। এতে অনেক শিশু জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যালয়ে যেতে পারছে না। অভিভাবকরা এ সাঁকো পার করে শিশুদের বিদ্যালয় পাঠাতে সাহস পাচ্ছেন না। ফলে ওই এলাকার শিক্ষার হার অনেক কম।

এক সময় ওই এলাকার মানুষ ট্রলারযোগে বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করতো কিন্তু খাল কচুরিপানায় ভয়ে যাওয়ায় তাও বন্ধ হয়ে গেছে। এখন একমাত্র ভরসা একটি মাত্র সাঁকো। ইউপি চেয়ারম্যান ও রাজনৈতিক নেতারা সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিলেও তা তিনু’যুগেও বাস্তবায়ন হয়নি।

গুরুদল বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী আল- আমিন ,  রাফিজা ,  তুষার ,  মাধবী  জানায়, এতবড় সাঁকো পার হয়ে বিদ্যালয়ে যেতে সমস্যা হয়। সরকারের কাছে এখানে একটি সেতু নির্মাণের দাবি জানাই।

উত্তর পশ্চিম চরচিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মো. ফরিদ মৃধা  বলেন, একটি বাঁশের সাঁকো এ এলাকার হাজার হাজার মানুষের ভরসা। প্রতিদিন এ সাঁকো দিয়ে শতাধিক মানুষ জীবনের ঝুঁকি পারাপার হচ্ছে। এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের সেতু নির্মাণের দাবি থাকলেও কেউ এগিয়ে আসেনি।

ওই ওয়ার্ডের  ইউপি সদস্য  আব্দুস সালাম মোল্লা লিটন  বলেন, এ এলাকার মত এত অবহেলিত এলাকা কোথাও আছে কিনা আমার জানা নেই। তিন দিক খাল বেষ্টিত এ ওয়ার্ডে কোন ভালো কাঁচা, পাকা রাস্তা সেতু নেই। সাঁকোই এ এলাকার মানুষের ভরসা। এতে মানুষের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ এলাকার শিশুরা বিদ্যালয়ে যেতে না পারায় শিক্ষার হার কম।

আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব, জিএম দেলওয়ার হোসেন বলেন, ওই এলাকার মানুষের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য খালে একটি সেতু নির্মাণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com