বঙ্গবন্ধু আমাদের মুক্তি ও স্বাধীনতার প্রতীক- বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী।

বঙ্গবন্ধু আমাদের মুক্তি ও স্বাধীনতার প্রতীক- বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী।

বঙ্গবন্ধু আমাদের মুক্তি ও স্বাধীনতার প্রতীক- বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী।

মোঃ সনজব আলীঃ  বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি বলেছেন- “বঙ্গবন্ধু আমাদের মুক্তি ও স্বাধীনতার প্রতীক। বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলনের প্রধান শক্তি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় বাঙালির কোনোদিন কোনো রাষ্ট্র ছিল না। বাঙালিকে ঐক্যবদ্ধ করে দীর্ঘ আন্দোলন ও সংগ্রামের মাধ্যমে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু, দিয়েছেন পরাধীনতার দাসত্ব থেকে মুক্তি।”

 

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে আজ হবিগঞ্জে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

তিনি আরো বলেন, “পৃথিবীর সেরা রাজনৈতিক ভাষণের ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ ব্যতিক্রমী এবং অনন্য। ১৯৭১ সালে ৭ই মার্চের ভাষণ একটি জাতিকে জাগ্রত করেছে, সবাইকে মিলিয়েছে এক মোহনায়, সবাইকে করে তুলেছে স্বাধীনতামুখী- এমন ঘটনা বিশ্ব-ইতিহাসে বিরল। এই ভাষণে ব্যক্ত হয়েছে একটি জাতিরাষ্ট্র নির্মাণের মৌলিক শক্তি ও রাজনৈতিক দর্শন। ৭ই মার্চের ভাষণে বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে চূড়ান্ত লড়াইয়ের প্রস্তুতির নির্দেশনা দিয়েছেন, দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধের সামগ্রিক দিকনির্দেশনা। এ ভাষণ শুধু ভাষণ নয়, এটি একটি অনন্য রণকৌশলের দলিল। পৃথিবীর ইতিহাসে যতদিন মুক্তির জন্য সংগ্রাম থাকবে, ততদিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণটি মুক্তিকামী মানুষের মনে চির জাগরুক থাকবে। এ ভাষণ শুধু বাংলাদেশের মানুষের জন্য নয়, সারা বিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের চির অনুপ্রেরণা।”

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ মুক্তিযুদ্ধের পুরো সময়জুড়ে দেশের মানুষকে উজ্জীবিত রেখেছে। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে প্রচারিত এই অমর ভাষণ জীবন-মরণের কঠিন দুঃসময়ে বিপন্ন মানুষকে দিয়েছে শক্তি ও সাহস। এই শক্তি ও সাহসে ভর করেই বীর মুক্তিযোদ্ধারা মেশিনগানের গুলির মুখে এগিয়ে গেছে, প্রবেশ করেছে শত্রুর বাংকারে, ছিনিয়ে এনেছে বিজয়। বুকের গভীরে ‘বঙ্গবন্ধু’ আর মুখে ‘জয় বাংলা’-এই ছিলো বাঙালির মূল প্রেরণা আর অস্ত্র।”

 

মাহবুব আলী বলেন, “আজ বাংলাদেশের মাটি ও মানুষের মধ্যে যে প্রভূত উন্নয়ন লক্ষ্য করা যায় তার স্বপ্নদ্রষ্টা বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের উন্নয়নে যে স্বপ্ন দেখেছিলেন তা এখন বাস্তবায়িত হচ্ছে বঙ্গবন্ধু কন্যার হাত ধরে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও বহুমাত্রিক নেতৃত্বের কারণেই আজ আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছি। জাতির পিতার স্বপ্নের “সোনার বাংলা” গড়ে তুলতে জননেত্রি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ থেকে দৃঢ়তার সাথে কাজ করে যাব “মুজিববর্ষে” এই হোক আমাদের প্রতিজ্ঞা।”

 

এর আগে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন প্রতিমন্ত্রী। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট আবু জাহির, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শহিদ উদ্দিন চৌধুরী, হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাচ্ছিরুল ইসলাম প্রমূখ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com