বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের জন্য ‘রোগা’ কাউকে খুঁজছেন নির্মাতা বেনেগাল

বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের জন্য ‘রোগা’ কাউকে খুঁজছেন নির্মাতা বেনেগাল

বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের জন্য ‘রোগা’ কাউকে খুঁজছেন নির্মাতা বেনেগাল
বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের জন্য ‘রোগা’ কাউকে খুঁজছেন নির্মাতা বেনেগাল

লোকালয় ডেস্কঃ  বঙ্গবন্ধু শেষ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে নির্মিত হতে যাচ্ছে জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র। এটি নির্মাণ করবেন ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। নতুন খবর হলো বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয়ের জন্য বাংলাদেশ থেকে তিনি ‘সরু ও রোগা’ চেহারার কাউকে খুঁজছেন।

বিবিসি বাংলার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানিয়েছেন মুম্বাইয়ের বর্ষীয়ান এ নির্মাতা।

বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণের বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গত বছরের এপ্রিলে ভারত সফরের সময় সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর হয়েছিল। সেই অনুযায়ী শুরু হচ্ছে নির্মাণ কাজ।

যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ছবিটি যে শ্যাম বেনেগাল নির্মাণ করবেন সেটি ২৭ আগস্ট জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

ওই সাক্ষাৎকারে ভারতীয় এ নির্মাতা জানিয়েছেন, অনেক আগ থেকেই তিনি শেখ মুজিবকে নিয়ে গবেষণা ও পড়াশুনো শুরু করে দিয়েছেন।

এ দিকে আগস্ট মাসের শুরুতে জানা যায়, বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক নির্মাণ করার জন্য ভারত থেকে তিনজন নির্মাতার নাম প্রস্তাব করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ছিলেন শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষ এবং কৌশিক গাঙ্গুলি।

শ্যাম বেনেগাল বলেন, ‘আমি চাইব বাংলাদেশ থেকেই কোনো অভিনেতা বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করুক। কারণ সেটাই বেশি সমীচীন হবে। আর তিনি একটু রোগা হলেই ভাল। কারণ জীবনের বেশিটা অংশ শেখ মুজিব নিজেও কিন্তু বেশ সরু আর রোগা ছিলেন।’

‘খুব কম লোকই এটা খেয়াল করেন যে শেখ মুজিবের যে বিশাল, ভারিক্কি চেহারার ছবিগুলোর সঙ্গে আমরা বেশি পরিচিত। সেটা তার জীবনের পরের দিকটার। শেষের দিকে তার কিছুটা ওজন বেড়েছিল ঠিকই, কিন্তু জীবনের বেশিটা সময় তিনি রীতিমতো রোগাই ছিলেন।’

এদিকে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলচ্চিত্র বানানোর দায়িত্ব কেন একজন বিদেশি পরিচালক পাবেন এ নিয়ে বাংলাদেশে বেশ কয়েকজন পরিচালক প্রশ্ন তুলেছেন। এ প্রসঙ্গে শ্যাম বেনেগাল বলেন, ‘এই প্রশ্নটার উত্তর দেওয়া আমার পক্ষে সত্যিই কঠিন। কিন্তু হাতের কাছেই তো উদাহরণ আছে। ভারতের মহাত্মা গান্ধীকে নিয়ে কী অসাধারণ ছবিই না বানিয়েছিলেন রিচার্ড অ্যাটেনবরো!’

‘আর সেই অর্থে বাংলাদেশের কাছে তো আমি সেরকম কোনো বিদেশিই নই! প্রশ্নটা হলো কাজটা ভালোভাবে করার যোগ্যতা আপনার আছে কি না। এ ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুকে বাংলাদেশ যে দৃষ্টিতে দেখে সেই মর্যাদার দাম আপনি দিতে পারছেন কি না।’

‘কাজেই আমার কাছে অন্তত এই প্রশ্নটার কোনো প্রাসঙ্গিকতা নেই, তবে মানুষ অন্যভাবে ভাবতেই পারেন। সেটা তাদের ওপর।’

গত ১২ জুলাই দিল্লিতে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তাদের মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বলা হয়, বঙ্গবন্ধুর এই বায়োপিকের কাজ যেন দ্রুতগতিতে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ ছাড়া দুই দেশের যৌথ উদ্যোগে একাত্তরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্রও তৈরি হবে। এর কাজ শেষ করার সময়সীমা ধরা হয়েছে ২০২১ সাল অর্থাৎ মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তীতে।

শ্যাম বেনেগাল নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু, নেহরু ও সত্যজিৎ রায়কে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। এ চলচ্চিত্রকার পদ্ম শ্রী, পদ্ম ভূষণ, দাদা সাহেব পালিনী, এএনআর ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। তিনি সত্যজিৎ রায়ের সহকারি হিসেবেও কাজ করেছেন।

ভারতে টেলিভিশনের জন্য ‘ভারত এক খোঁজ’ কিংবা ভারতীয় রেলকে নিয়ে ‘যাত্রা’র মতো প্রশংসিত কাজ করেছেন শ্যাম বেনেগাল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com