নৈশপ্রহরীকে গলাকেটে হত্যা, জড়িত সন্দেহে যুবককে পুড়িয়ে হত্যা

নৈশপ্রহরীকে গলাকেটে হত্যা, জড়িত সন্দেহে যুবককে পুড়িয়ে হত্যা

পার্বতীপূর (দিনাজপুর) :  দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলায় সুরুজ আলী (৪০) নামে এক ভ্যানচালককে কুপিয়ে হত্যা জের ধরে রবিউল ইসলাম রবি (২৮) নামে এক যুবককে পুড়িয়ে হত্যা করেছে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী।

বৃহস্পতিবার (৯ আগস্ট) উপজেলার শালবাগান এলাকায় ভোর ৫টায় ও সকাল ৮টার দিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত রবিউল দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব জগদল গ্রামের তারা মিয়ার ছেলে এবং সুরজ আলী একই উপজেলার জগদল ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে স্থানীয় মসজিদে ফজরের নামাজ পড়ে সুরুজ আলী বাড়ি ফিরছিলেন। পথে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রবিউল ধারালো অস্ত্র দিয়ে সুরুজ আলীকে কুপিয়ে হত্যা করে। ঘটনাস্থলের পাশেই অবস্থিত একটি মুরগি ফার্মের নৈশ প্রহরী মো. শহিদ ঘাতককে দেখে ফেলে। এসময় ঘাতক রবিউল নৈশ্য প্রহরী শহিদ ও তার তিন বছরের ছেলে একরামূল হক শামিমকে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। এতে শহিদ ও তার ছেলে একরামুল গুরুত্বর আহত হয়।

 

পরে সকাল পৌনে ৮টার দিকে ঘাতক রবিউলকে কবিরাজহাট এলাকায় আটক করে বিক্ষুব্ধ লোকজন। এসময় তাকে ঘটনাস্থলে এনে প্রথমে মারপিট এবং পরে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা করে।

এদিকে সুরুজ আলী হত্যাকাণ্ডের খবর চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী আগুন জ্বালিয়ে সকাল ৯টা পর্যন্ত দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। ঘাতক রবিউলের বসতবাড়ি গুঁড়িয়ে দিয়েছে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর। এসময় বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে রক্ষা পিয়েছেন রবিউলের বাবা-মাসহ স্বজনরা।

সকাল ৯টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সহায়তায় আগুন নিভিয়ে রবিউলের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রায় ৩ ঘণ্টা পর দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার (এসপি) হামিদুল আলম ও বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তোফাজ্জল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com