নীলফামারীতে হাজারো গরু লাম্ফি স্কিন রোগে আক্রান্ত, দিশেহারা খামারিরা

নীলফামারীতে হাজারো গরু লাম্ফি স্কিন রোগে আক্রান্ত, দিশেহারা খামারিরা

lokaloy24.com

লোকালয় ডেস্কঃ  ক্যাপরি পক্স ভাইরাসের সংক্রমণ গবাদি পশুর মাঝে ব্যাপক হারে লাম্পি স্কিন রোগ ছড়িয়ে পড়েছে। গত এক মাসের ব্যবধানে নীলফামারী জেলায় হাজার হাজার গরু এ রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে কিশোরগঞ্জ উপজেলায় আক্লান্ত হয়েছে ১০ হাজারের বেশি। পাশাপাশি মারা গেছে নয়টি গরু।

বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের মধ্যেই গরুর ওই ভাইরাস জনিত রোগে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে গরু খামারি ও কৃষকরা। বিশেষ করে কোরবানির ঈদ ঘিরে গরুর এই রোগ বড় ধরনের প্রভাব ফেলতে পারে।

স্থানীয় প্রাণী সম্পদ সূত্র বলছেন, এ রোগের কোনো কার্যকর ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি। মশা-মাছিবাহিত ওই রোগটি মূলত ছড়িয়ে পড়েছে।

জেলার সৈয়দপুর উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. রাশেদুল হক জানান, এবারে নতুন এই ‘লাম্ফি স্কিন’ রোগটি দেখা গিয়েছে। মাঠ পর্যায়ে মেডিকেল টিম কাজ করছে। পাশাপাশি গোট-টিস্যু ভ্যাকসিন পশুর ওজন ভেদে প্রতিটি গরুকে ২-৩ মিলিঃ করে দেওয়া হচ্ছে। আক্রান্ত পশুকে লক্ষণ দেখে চিকিৎসায় ভাল ফল পাওয়া যায়।

সদর উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা শাহিদুল ইসলাম জানান, জনবল সংকটের কারণে কিছুটা বিলম্ব হলেও পরিস্থিতি সামাল দিতে তিনটি ভ্যাটেনারি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। এতে তিনজন ডাক্তারের নেতৃত্বে উপজেলার পৌরসভাসহ ১৫টি ইউনিয়নে গোট-টিস্যু ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. মোনাক্কা আলী মুঠোফোনে জানান, প্রায় এক মাস ধরে এই ক্যাপরি পক্স ভাইরাসটি গ্রাম অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। এই অসুখটিকে ‘ল্যাম্ফি স্কিন ডিজিস বলা হয়। তিনি জানান, রোগ প্রতিরোধে মশা, মাছি থেকে পশুকে নিরাপদে রাখার জন্য মশারি ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com