সংবাদ শিরোনাম :
হবিগঞ্জে আ’লীগের সভাপতি জাহির, সম্পাদক আলমগীর মিস ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশ ও ভারতের দুই সুন্দরীর লড়াই নাগরিকত্ব বিল ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ অবস্থানকে দুর্বল করবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিনামূল্যে কুষ্ঠরোগের ওষুধ সরবরাহের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর টাকা দিয়ে প্রেমিক কিনছে চীনা মেয়েরা কাপড় কেচে রাতারাতি বিখ্যাত শিম্পাজি (ভিডিও) রোহিঙ্গা গণহত্যার উল্লেখই করলেন না সু চি বিচারপতির ছেলের বিরুদ্ধে সুমনের রিট শুনবেন না হাইকোর্ট সংখ্যালঘু নির্যাতনের রেকর্ড করেছিল বিএনপি: হবিগঞ্জে সম্মেলনে সেতুমন্ত্রী সরকারি নিষেধাজ্ঞা ভেঙে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড় কাটার ধুম!
নির্বাচনে অনিয়মের প্রতিবেদন জমা দিলেন ধানের শীষের ১২০ প্রার্থী

নির্বাচনে অনিয়মের প্রতিবেদন জমা দিলেন ধানের শীষের ১২০ প্রার্থী

নির্বাচনে অনিয়মের প্রতিবেদন জমা দিলেন ধানের শীষের ১২০ প্রার্থী
নির্বাচনে অনিয়মের প্রতিবেদন জমা দিলেন ধানের শীষের ১২০ প্রার্থী

লোকালয় ডেস্ক: একাদশ সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ১২০ জন প্রার্থী নির্বাচনে বিভিন্ন অনিয়মের তথ্য বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন। বিএনপির কার্যালয়ের সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবেদনে নির্বাচনের আগে যেসব নেতাকর্মী গ্রেফতার, সহিংসতায় আহত, নিহত হয়েছেন তাদের তালিকার সঙ্গে নির্বাচনের আগের রাতে এবং ভোটের দিন যেসব ভোট কেন্দ্রে অনিয়ম হয়েছে তার ভিডিও এবং লিখিত বর্ণনাও রয়েছে।

গত ৩ জানুয়ারি বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে প্রত্যেক প্রার্থীকে ৮টি ক্যাটাগরিতে নির্বাচনের ‘অনিয়মের’ তথ্য সাত দিনের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। এখন পর্যন্ত ১২০ জন প্রার্থী সেই প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন।

ক্যাটাগরি অনুযায়ী প্রার্থীদের নিজের ও পরিবারের অবরুদ্ধ হয়ে পড়া কিংবা হামলায় আহত, সহায় সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার তথ্য ও ছবি, নিজ নিজ সংসদীয় এলাকায় সংঘটিত অনিয়ম, ভোট জালিয়াতি, সহিংসতা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের তাণ্ডব এবং সন্ত্রাসের একটি সচিত্র প্রতিবেদন ইত্যাদি চাওয়া হয়।

এ বিষয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, এখন পর্যন্ত ১২০ জন প্রার্থী সেই প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন। ডাক যোগে চিঠি পাঠানোর কারণে অনেক প্রার্থী দেরিতে চিঠি পেয়েছেন, এই কারণে সব প্রার্থী এখনও প্রতিবেদন জমা দেননি। আশা করি ১-২ দিনের মধ্যে সবাই জমা দিয়ে দেবেন।
সব প্রতিবেদন জমা হলে তার ওপর ভিত্তি করে একটি চূড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরি করা হবে। এরপর এগুলো সংবাদ সম্মেলনে করে গণমাধ্যমে তুলে ধরা হবে। এরপর ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের কাছে তুলে ধরা হবে। এছাড়া দেশি-বিদেশি সংস্থাগুলোকে জানানো হবে।

জানা যায়, একাদশ সংসদ নির্বাচনে সব প্রার্থী নির্বাচনি ট্রাইব্যুনালে মামলা করার সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে নেওয়া হয়েছে। মামলার সময় প্রার্থীরা নিজ নিজ আসনের প্রতিবেদনের পাশাপাশি ভোটের সামগ্রিক চিত্র নিয়ে সব আসন নিয়ে তৈরি করা পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদনও জমা দেবেন।

এই বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম বলেন, আগে সব প্রতিবেদন জমা হোক। তারপর আমরা চিন্তা-ভাবনা করবো এইগুলো কোন কাজে লাগাবো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com