নায়িকার কাছে ‘কুপ্রস্তাব’!

নায়িকার কাছে ‘কুপ্রস্তাব’!

* বলিউডের দারুণ সাহসী নায়িকা সুরভিন চাওলা।
* ‘হেট স্টোরি টু’ ছবিতে তাঁকে দেখা গেছে একাধিক অন্তরঙ্গ দৃশ্যে।
* ‘পারছেড়’ ছবিতে এই বলিউড সুন্দরী একটা দৃশ্যে নগ্ন হয়েছিলেন!

লোকালয় মুম্বাই : বলিউডের দারুণ সাহসী নায়িকা সুরভিন চাওলা। ‘হেট স্টোরি টু’ ছবিতে তাঁকে দেখা গেছে একাধিক অন্তরঙ্গ দৃশ্যে। এমনকি ‘পারছেড়’ ছবিতে এই বলিউড সুন্দরী একটা দৃশ্যে নগ্ন হয়েছিলেন! সম্প্রতি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ‘ছুরি’তেও সুরভিনকে পরিচালক ও অভিনেতা অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে অন্তরঙ্গ দৃশ্যে অভিনয় করতে দেখা গেছে। এবার এই বলিউড সুন্দরী ডিজিটাল দুনিয়ায় আসছেন নতুনরূপে। এএলটি (অল্ট) বালাজি প্রযোজিত ওয়েব সিরিজ ‘হক সে’তে সুরভিনকে দেখা যাবে শিশু বিশেষজ্ঞের চরিত্রে। তাঁর বিপরীতে আছেন রাজীব খান্ডেলওয়াল। কেন ঘোষ পরিচালিত এই ওয়েব সিরিজটি মুক্তি পাবে আগামী ফেব্রুয়ারিতে।

সম্প্রতি হোটেল নভোটেলে ‘হক সে’ ছাড়া নিজের সম্পর্কে নানা কথা প্রথম আলোকে বলেন সুরভিন চাওলা। ‘হক সে’তে আপনাকে অন্য রকম এক চরিত্রে দেখা যাবে। কেমন লাগছে? সুরভিন বলেন, ‘হ্যাঁ, এই ওয়েব সিরিজে আমাকে ভিন্ন চরিত্রে দেখা যাবে। কাশ্মীরের প্রেক্ষাপটে ওয়েব সিরিজটির গল্প বোনা হয়েছে। “হক সে” চার বোনের অধিকার আদায় আর স্বপ্ন পূরণের গল্প। আমরা চার বোন খুবই সাহসী। কীভাবে আমরা সব বাধা অতিক্রম করে নিজের স্বপ্ন পূরণ করব, তারই গল্প। এই ছবিতে আমি শিশু বিশেষজ্ঞ। চরিত্রটি খুব সুন্দর। আমি পরিবারের বড় মেয়ে। বোনদের ব্যাপারে খুব রক্ষণশীল। অনেকটা মায়ের মতো। আর এই ওয়েব সিরিজে আমাকে রাজীবের বিপরীতে দেখা যাবে।’

এত দিন আপনাকে পর্দায় অনেক সাহসী হয়ে উঠতে দেখা গেছে। এ ধরনের দৃশ্যে অভিনয় করতে অস্বস্তি বোধ করেছেন? মুচকি হেসে সুরভিন বলেন, ‘না, একদমই তা হয়নি। আমি প্রথম “হেট স্টোরি টু”তে সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করেছি। আর তখন আমি মানসিকভাবে প্রস্তুত ছিলাম। কারণ আমার জন্য এটা শুধু একটা কাজ ছিল। চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে আমাকে অভিনেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে হয়েছে। যদি জোর করে চিত্রনাট্যে এ ধরনের দৃশ্য ঢোকানো হতো, তখন আমার আপত্তি থাকত। কিন্তু এই ছবিতে সুন্দরভাবে নারী-পুরুষের ভালোবাসাকে পর্দায় তুলে ধরা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যায় কোথায়? “পারছেড়” ছবিতে আমি নগ্ন হয়েছি। শরীর নিয়ে আমার কোনো ছুতমার্গ নেই। দুই বছর আগে আমার বিয়ে হয়েছে। আমার স্বামীরও এ ক্ষেত্রে কোনো আপত্তি নেই। তিনি বরং আমাকে উৎসাহিত করেন।’

শুনেছি ‘ছুরি’ ছবিতে আপনি অনুরাগকে অন্তরঙ্গ দৃশ্যে অভিনয় করতে সাহস জুগিয়েছেন? সুরভিন বলেন, ‘অনুরাগ আমার খুব ভালো বন্ধু। ‘আগলি’তে কাজ করার সময় থেকে ওর সঙ্গে দারুণ বন্ধুত্ব হয়। অনুরাগ ক্যামেরার সামনে আমার সঙ্গে অন্তরঙ্গ হতে ভয় পেয়েছে। আমি ওকে ওর টিনএজের প্রথম চুম্বনের কথা মনে করতে বলি। জীবনের প্রথম চুম্বন করতে সবারই একটু অস্বস্তি হয়। তারপর সব ভয়, সব লজ্জা কেটে যায়। তবে অন্তরঙ্গ দৃশ্যে অভিনয় করা একদমই মজার কথা নয়। এর মধ্যে অনেক টেকনিক থাকে। এই দৃশ্যে যখন অভিনয় করি, তখন মনে হয় দৃশ্যটা কখন শেষ হবে।’

‘কাস্টিং কাউচ’ প্রসঙ্গে বলিউডের এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমাকে একাধিকবার এর শিকার হতে হয়েছে। আমার কাছে অনেক কুপ্রস্তাব এসেছে। আর রাজি হইনি বলে আমাকে অনেক কাজ ছাড়তে হয়েছে। শুধু বলিউডে নয়, দক্ষিণেও আমাকে একাধিকবার এর মুখোমুখি হতে হয়েছে। একজন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক আমাকে তাঁর শয্যাসঙ্গী হওয়ার প্রস্তাব দেন। তাঁকে জানাই, আমি কোনো সমঝোতা করতে পারব না। আমি মনে করি, সব মেয়েই যদি “না” বলতে শেখে, তাহলে এই প্রথা একদিন বন্ধ হয়ে যাবে। আমাদের মধ্যে কেউ কেউ তাদের প্রশ্রয় দিই বলে তারা এত সাহস পাচ্ছে।’

‘হক সে’ ওয়েব সিরিজের পরে সুরভিনকে দেখা যাবে নেটফ্লিক্সের ‘স্যাক্রেড গেম’ ওয়েব সিরিজে। এই ওয়েব সিরিজে তাঁর সঙ্গে আছেন রাধিকা আপ্তে, নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী ও সাইফ আলী খান।

লোকালয় সংবাদ/ ০২ ফেব্ররুয়ারী ২০১৮/ একে কাওসার

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com