নবীগঞ্জে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণে স্থান নির্ধারণ  পরিদর্শনে এমপি মিলাদ গাজী।

নবীগঞ্জে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণে স্থান নির্ধারণ  পরিদর্শনে এমপি মিলাদ গাজী।

নবীগঞ্জে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণে স্থান নির্ধারণ

পরিদর্শনে এমপি মিলাদ গাজী

নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ আশ্রয়নের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার’’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মুজিববর্ষের মধ্যে ভূমিহীন ও গৃহহীন সকল পরিবারের জন্য ঘর নিশ্চিতে সর্বাত্মক কাজ করে যাচ্ছে সরকার। উপকারভোগী নির্বাচন ও ঘরের গুণগত মান নিশ্চিত করণ এবং নির্দিষ্ট সময়ে কর্মসূচি বাস্তবায়নে করণীয় নির্ধারণ করেছে সরকার। এ বিষয়ে মাঠ প্রশাসনের কাছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার গৃহহীন ও ভূমিহীনদের পুনর্বাসন করার জন্য প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। বিভিন্ন অবৈধ দখলদারে কবল থেকে সরকারী খাস জমি উদ্ধার করে এতে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অবৈধ দখল উচ্ছ্বেদ করা হয়। হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ মিলাদ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন সরেজমিনে উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নে ও আউশকান্দি ইউনিয়নে সরকারী খাস জমি পরিদর্শন করে অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে উচ্ছ্বেদ করে ঘর নির্মাণের জন্য স্থান নির্ধারণ করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নবীগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৩৯০ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের তালিকা সম্পন্ন করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ‘ক’ শ্রেণি অর্থাৎ ভূমিহীন ও গৃহহীন ৬০টি পরিবারের পুনর্বাসন কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে ‘ক’ শ্রেণি ভুক্ত ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ২ শতাংশ খাস জমি প্রদান করে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে। দুই কক্ষ বিশিষ্ট প্রতিটি আধা পাকা ঘরের নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। সবগুলো বাড়ি সরকার নির্ধারিত একই ডিজাইনে নির্মাণ করা হবে। রান্নাঘর, সংযুক্ত টয়লেট ও ইউলিটি স্পেসসহ অন্যান্য সুবিধা থাকবে এসব বাড়িতে।

এ ব্যাপারে এমপি গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ মিলাদ বলেন, দেশরত্ম জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুজিব বর্ষে দেশের সব ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের ঘর দেওয়ার যে ঘোষণা দিয়েছিলেন, তা সফল করতে সর্বাত্মক কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে প্রথম পর্যায়ে ‘ক’ শ্রেণি অর্থাৎ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পুনর্বাসন কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। মুজিববর্ষে দেশের সব মানুষকে ঘরে বন্দোবস্তু করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করছে মাঠ প্রশাসন। এসব প্রকল্পে কেউ অনিয়ম-দুর্নীতি করলে তা বরদাস্ত করা হবে না।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com