নতুন মাশরাফি খোঁজার সময় এসেছে

নতুন মাশরাফি খোঁজার সময় এসেছে

নতুন মাশরাফি খোঁজার সময় এসেছে
নতুন মাশরাফি খোঁজার সময় এসেছে

খেলাধুলা ডেস্কঃ মাশরাফি বিন মুর্তজা টি-টোয়েন্টি ছেড়েছেন এক বছরেরও বেশি সময়। তখন থেকেই বলা হচ্ছে, টি-টোয়েন্টির জন্য মাশরাফির মতো কাউকে খোঁজ করবে বাংলাদেশ। সময় ঠিকই পেরিয়ে যাচ্ছে, ওয়ানডে অধিনায়কের মতো কেউ মিলছে না। এমন কারো খোঁজ করা বা কাউকে তৈরি করার ব্যাপারটি যে সহজ কোনো প্রক্রিয়া নয়, সেটা ভালো করেই জানে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট। সেটা রবিবার স্বীকার করে নিলেন বাংলাদেশ দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুও।

মাশরাফির মতো অথবা তার কাছাকাছি মানের কাউকে তৈরির করার সময় এসে গেছে বলে মনে করেন নান্নু। টি-টোয়েন্টির জন্য একজন মাশরাফি, আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দল, মোসাদ্দেকের দলে ফেরা, তাসকিন-ইমরুলের বাদ পড়াসহ আরও অনেক কিছু নিয়েই কথা বললেন প্রধান নির্বাচক। প্রিয় পাঠকদের জন্য উল্লেখযোগ্য অংশ তুলে ধরা হলো।

প্রশ্ন: আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে দলে ভিড়িয়েছেন। তাকে দলে নেওয়ার পেছনে কোন ব্যাপারটা কারণ হিসেবে কাজ করেছে?

মিনহাজুল আবেদীন নান্নু: অলরাউন্ডারের চিন্তা থেকেই মোসাদ্দেককে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। কারণ মিরাজের ফিটনেস নিয়ে কিছুটা সন্দেহ আছে আমাদের। এখন পর্যন্ত যতখানি আছে, শত ভাগ ফিট নয়। ধীরে ধীরে তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। সেই হিসেবে মিরাজের ব্যাকআপ হিসেবে মোসাদ্দেক হোসেনকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

প্রশ্ন: কিছুদিন আগেই কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে। এবার দলে নেওয়া হলো। এই পরিকল্পনাটা কি আগে থেকে ছিল না আপনাদের?

নান্নু: ওটা অন্য জিনিস। আমরা মনে করছি টি-টোয়েন্টিতে বোলিং করার যথেষ্ট স্কিল আছে মোসাদ্দেকের। ও যথেষ্ট ট্যালেন্ট আমরা জানি। মাঝখানে একটু ছন্দপতন হয়েছিল। এই মুহূর্তে ফিটনেসসহ যাবতীয় বিষয়গুলো দেখে এবং টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে আলাপ করে আমরা তাকে নির্বাচন করেছি।

প্রশ্ন: নিদাহাস ট্রফিতে সৌম্য সরকার তেমন কিছুই করতে পারেননি। তবুও তাকে দলে রাখা হয়েছে…

নান্নু: টি-টোয়েন্টিতে আমরা যতগুলো খেলোয়াড়কে নিয়ে চিন্তা করি, তার কথাটা সবার আগে চলে আসে। বিষয়টি নিয়ে আমরা অধিনায়ক ও কোচের সঙ্গেও আলোচনা করেছি। ওরা সৌম্যর ব্যাপারে ইতিবাচক ছিল। কোর্টনি ওয়ালশের সঙ্গে তো আমাদের কথা হয় সবসময়ই। যেহেতু ও নিদাহাস ট্রফিতে ছিল, ওর সাজেশনটাও আমরা নিয়েছি।

প্রশ্ন: নুরুল হাসান সোহানকে বিবেচনা করা যেত কি না?

নান্নু: আফগানিস্তানে তিনটা টি-টোয়েন্টি খেলা। ওকে নিয়ে আমাদের অন্যরকম চিন্তা-ভাবনা আছে। সামনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে খেলা। টি-টোয়েন্টি খেলে টেস্ট প্রস্তুতি নেওয়াটা খুব কঠিন! সামনে লম্বা সফর, যার কারণে কিছু খেলোয়াড়কে অফ করা হয়েছে। ইমরুল কায়েসকেও একই কারণে অফ করা হয়েছে। শর্টার ভার্সনে খেলোয়াড় দেখা কিন্তু খুব কষ্টকর। সামনের ব্যস্ততার কথা চিন্তা করেই সোহানকে ড্রপ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দলে দুইজন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান আছে। লিটনের সঙ্গে মুশফিকও আছে।

প্রশ্ন: পেসার তাসকিন আহমেদ বাদ পড়েছেন। তার বাদ পড়ার কারণ পারফরম্যান্স নাকি ইনজুরি?

নান্নু: ইনজুরি আছে, পারফরম্যান্সও আছে। ও কিন্তু নিদাহাস ট্রফিতে গিয়েই ইনজুরিতে পড়েছিল। তবে এই ইনজুরিটা বেশ আগের। রিহ্যাব প্রক্রিয়াতে ইনজুরি কাটানোর চেষ্টা করছে তাসকিন। আমার বিশ্বাস হয়তো ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের আগে সুস্থ হয়ে উঠবে।

প্রশ্ন: টি-টোয়েন্টি থেকে মাশরাফি বিন মুর্তজার অবসরের এক বছর হয়ে গেল। তখন থেকেই তার জায়গায় বিকল্প কারো খোঁজে আছেন আপনারা। এটার কী অবস্থা?

নান্নু: মাশরাফির বিকল্প বের করা এ দেশে কঠিন একটি কাজ। মাশরাফি সব ফরম্যাটে আমাদের জন্য আউটস্ট্যান্ডিং পারফরমার। দুর্ভাগ্যবশত মাশরাফি এখন টি-টোয়েন্টি খেলছে না। এটা আমাদের জন্য ব্যাড লাক। ওর মতো হয়তো পাচ্ছি না, তবে ওর কাছাকাছি কাউকে তৈরি করার সময় এসে গেছে। আমরা এখন একজন বোলিং অলরাউন্ডারের খোঁজে আছি। আমার বিশ্বাস আগামী বিশ্বকাপের আগে অন্তত একজন বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে কাউকে না কাউকে খুঁজে পাব।

প্রশ্ন: আফগানিস্তান সিরিজে নতুন কাউকে পরখ করে দেখার সুযোগ ছিল কি না?

নান্নু: এই জায়গাতে আমরা ওই চিন্তা-ভাবনায় যাইনি। কারণ প্রতিটি সিরিজ আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে আমরা অনেকটা পিছিয়ে আছি। এই কারণেই সেরা দলটা পাঠানোর চিন্তা-ভাবনা করেছি। সামনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরও আছে। ওখানেও টি-টোয়েন্টি আছে। চেষ্টা করেছি আমাদের সম্ভাব্য সেরা দলটা গঠন করতে। নিদাহাস ট্রফির পর টি-টোয়েন্টি দল অনেকটাই পেয়ে গেছি। কিছুদিন আগেও এ ব্যাপারে আমরা ব্যাকফুটে ছিলাম। এই ফরম্যাটে আমরা বুঝতে পেরেছি কোথায় আমাদের শক্তির জায়গাগুলো, যে কারণে খুব বেশি পরিবর্তনে যাইনি আমরা।

প্রশ্ন: নাজমুল হোসেন শান্ত ও মোহাম্মদ মিথুনকে নিয়ে আপনাদের কী পরিকল্পনা?

নান্নু: শান্তকে আমরা ২০ ওভারের ক্রিকেটের জন্য চিন্তা করছি না। ওকে নিয়ে আমাদের ভাবনা ৫০ ওভার কিংবা লংগার ভার্সনের ক্রিকেটে। সামনেই হয়তো ওকে দেখা যাবে এই ধরনের কোনো ম্যাচে। আর মিথুনের জায়গাতে অনেকগুলো খেলোয়াড় ভালো করছে। এই কারণে ওকে বিবেচনা করা হয়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com