‘দেশে পাঠানো হলে আমাকে হত্যা করা হবে’

‘দেশে পাঠানো হলে আমাকে হত্যা করা হবে’

'দেশে পাঠানো হলে আমাকে হত্যা করা হবে'
'দেশে পাঠানো হলে আমাকে হত্যা করা হবে'

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ব্যাংকক বিমানবন্দরে আটক এক সৌদি তরুণী বলেছেন, দেশে পাঠানো হলে তাকে হত্যা করা হবে। রোববার ১৮ বছর বয়সী ওই তরুণীকে থাইল্যান্ডে ঢুকতে দেয়া হয়নি।

সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার তদন্তের ব্যাপারে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। গতবছর সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার ঘটনায় সৌদি আরবে বিরুদ্ধে নতুন করে মানবাধিকার লংঘন করা হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক মহলে নিন্দার ঝড় উঠে।

রাহাফ মাহাম্মদ আল-কুনুন নামের ওই তরুণী বলেন, তিনি সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর সৌদি ও কুয়েতি কর্মকর্তারা তাকে থামিয়ে তার কাছ থেকে ভ্রমণ কাগজপত্র জোর করে কেড়ে নেয়।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ তার এই দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। তিনি বলেন, তারা আমার পাসপোর্ট কেড়ে নিয়েছে। তার পুরুষ অভিভাবক তার অনুমতি ছাড়া ভ্রমণ করার জন্য তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন।

কুনুন বলেন, তিনি তার পরিবারের কাছ থেকে পালাতে চাইছিলেন। তার পরিবারের সদস্য তার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায়। আমি চুল কাটায় আমার পরিবার আমাকে ছয় মাস ধরে একটি রুমে আটকে রাখে।

সৌদি তরুণী বলেন, তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হলে তাকে কারাগারে আটক রাখা হবে। আমি শতভাগ নিশ্চিত সৌদি জেল থেকে বেরুবার পর যত দ্রুত সম্ভব আমাকে হত্যা করা হবে।

থাইল্যান্ডের ইমিগ্রেশন প্রধান সুরাচাতে হাকপার্ন বলেন, রোববার কুয়েত থেকে একটি ফ্লাইটে করে থাইল্যান্ডে পৌঁছলে তাকে দেশটিতে ঢুকতে দেয়া হয়নি।

তিনি বলেন, ওই তরুণীর রিটার্ন টিকিট অথবা অর্থ নেই। রাহাফকে বিমানবন্দরের একটি হোটেলে রাখা হয়েছে। বিয়ে না করার জন্য তিনি তার পরিবার থেকে পালিয়ে এসেছেন। থাই কর্তৃপক্ষ ঘটনাটির ব্যাপারে সৌদি দূতাবাসকে বিষয়টি অভিহিত করেছে।

কুনুন বলেন, তিনি অস্ট্রেলিয়ায় রাজনৈতিক আশ্রয় চাওয়ার জন্য সেখানে যাচ্ছিলেন। কিন্তু সুবর্ণ ভূমি বিমানবন্দরে পৌঁছলে সৌদি ও কুয়েতি দূতাবাসের প্রতিনিধিরা তাকে আটক করে।

তিনি টুইটারে জানান, আমি বাঁচতে চাই। তার একটি অস্ট্রেলীয় ভিসা থাকার পরও তার বাবা সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তাদের জানান যে তিনি একজন মানসিক রোগী।

কুনুন বলেন, আমি বিমানবন্দর থেকে বের হতে পারিনি। আমি চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু নিরাপত্তা কর্মকর্তারা আমাকে পর্যবেক্ষণ করছেন।

অভিবাসন প্রধান সুরাচাতে বলেন, সোমবার সকালে কুনুনকে সৌদি আরব পাঠিয়ে দেয়া হবে। তবে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানিয়েছে, থাই কর্তৃপক্ষকে ওই কিশোরীকে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর এর আশ্রয় নিয়ে দিতে হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com