সংবাদ শিরোনাম :
হবিগঞ্জ জেলা সংবাদপত্র হকার্স সমিতির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন। ডিস ব্যাবসা নিয়ে মুছা এবং দুলাল মেম্বারের লোকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় ৪চার ।   চুনারুঘাটে মাদক নির্মূল কমিটির সভাপতি মাদক সহ বিজিবির হাতে আটক। হবিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান  মৃত্যু হিরণ মিয়াকে। চুনারুঘাটে গাঁজা আটকাতে গিয়ে মারধর শিকার হলেন ছাত্রলীগ নেতা। হবিগঞ্জে টমটম শ্রমিকদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩০। দুইদিনে আমাদের সাথে সর্বমোট ৬৯১ জন মধ্যে ১৭০ জনকে প্রয়োজনীয় সেবা দিতে পুলিশ সাইবার কারনে সিলেটের কুমারগাঁও বিদ্যুত উৎপাদন কেন্দ্রের আগুন নিয়ন্ত্রণে। আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ হবিগঞ্জ পৌর শাখার কমিটি গঠন। চুনারুঘাটে বিজিবি’র ৬ জোয়ানের নামে আদালতে মামলা ॥ সিআইডি মাঠে।
ডিস ব্যাবসা নিয়ে মুছা এবং দুলাল মেম্বারের লোকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় ৪চার ।  

ডিস ব্যাবসা নিয়ে মুছা এবং দুলাল মেম্বারের লোকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় ৪চার ।  

ডিস ব্যাবসা নিয়ে মুছা এবং দুলাল মেম্বারের লোকদের  মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ৪চার ।

 

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ আজ শনিবার বিকালে আমুরোড বজারে ডিস ব্যাবসায়ী মুছা আখঞ্জী এবং দুলাল মেম্বারে ও কেএম আনোয়ারের লোকদের

মধ্যে দফায় দফায় সংগ্রসে চারজন জন গুরুতর আহত হয়। আহতরা হলেন জাহির। মিয়া,পিতা আঃ গনি,সাজু মিয়া ২৫পিতা বারিক মিয়া,হারুন মিয়া,৩০পিতা মহিউদ্দীন,।

দৌলত জমাদার ২৫পিতা ইউছুফ জমাদার,তাদেরকে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদেরকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

উল্লেখ্য যে ডিস ব্যবসা নিয়ে মুসা আখঞ্জি এবং দুলাল মেম্বার এর লোকদের মধ্যে উত্তেজনা ।

বিরাজ করে আসছিলো বহুদিন যাবত। কি কারনে এই বিরোধ লেগে আছে। তা জানতে চাইলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন। ২নং আহমদা ইউনিয়ন লাইসেন্স ধারি প্রতিষ্ঠান। নিনা ভিসনশন কেবল টিভি নেটওয়ার্কের মালিক মোঃ মুস্তাক উদ্দিন আখঞ্জী দিরগ দিন ধরে বৈধ ভাবে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু দুলাল মেম্বার ও কেএম কামরুল আনোয়ার হোসেন সম্পূর্ণ অবৈধ ভাবে ২ নং আহ্মেদাবাদ ইউনিয়নে ডিস ব্যবসা পরিচালনা করে যাচ্ছে। এই অবৈধ।

 

ব্যবসা বন্ধের জন্য নিদর্শন ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক এর স্বত্বাধিকারী জনাব মোঃ মোস্তাক উদ্দিন আকঞ্জি চুনারুঘাট উপজেলা অফিসার বরাবর ২০১৭ সালে আবেদন করেছিলেন। কিন্তু উপজেলা প্রশাসন এর কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। ইতিপূর্বে।

চুনারুঘাট থানা অফিসার ইনচার্জ বরাবর আবেদন জানালে তিনি এর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি বলে জানান। কিন্তু সরকারের সব ধরনের নিয়ম মেনে মুস্তাক আকঞ্জি পক্ষে ব্যবসা পরিচালনা করাটা কঠিন হয়ে যাচ্ছিল কোন উপায় না পেয়ে অবৈধ ডিস ব্যবসা বন্ধের জন্য নিজেই পদক্ষেপ নেন। এর প্রেক্ষিতে আজ এ সংঘর্ষ হয়। এ ব্যাপারে এই ব্যাপারে কোন চুনারুঘাট থানায় মামলা করা হয়নি বলে জানান তারা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com