ছাত্রীকে মারধরের ঘটনায় তৃণমূল ছাত্র নেতার আত্মসমর্পণ

ছাত্রীকে মারধরের ঘটনায় তৃণমূল ছাত্র নেতার আত্মসমর্পণ

চুঁচুড়া: রিষড়া কাণ্ডে আজ শ্রীরামপুর আদালতে আত্মসমর্পণ করল অভিযুক্ত জিএস৷ কটূক্তির প্রতিবাদ করায় রিষড়ার বিধানচন্দ্র কলেজের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীকে পেটে লাথি, ঘুসি, ঘাড় ধাক্কা দেওয়া ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠে ওঠে কলেজের ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে৷ ওই তৃণমূল ছাত্রনেতা আবার রিষড়া পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান জাহিদ খানের ছেলে৷ এদিনের এই ঘটনার পর অভিযুক্ত সাহিদ হাসান খান আত্মসমর্পণ করলেও তৃণমূলের এই ছাত্র নেতার পাশে দাঁড়িয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী৷

বৃহস্পতিবার রিষড়ার বিধান চন্দ্র কলেজের যে সিসিটিভি ফুটেজ সামনে এসেছে তার সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সাফ জানিয়ে দিলেন, “সিসিটিভি-তে অনেক কিছুই দেখা যায়। তার প্রামাণ্যতা কতটুকু?”

গতকালই প্রকাশ্যে আসে হুগলির জেলার রিষড়ার বিধান চন্দ্র কলেজের ইউনিয়ন রুমের একটি সিসিটিভি ফুটেজ। যেখানে দেখা যাচ্ছে ইউনিয়ন রুমে কলেজের জেনারেল সেক্রেটারির হাতে নিগ্রহের শিকার হতে হচ্ছে এক ছাত্রীকে। একাধিকবার ওই ছাত্রীকে আঘাত করে কলেজের জেনারেল সেক্রেটারি (জিএস)সাহিদ হাসান খান৷

সিসিটিভি ফুটেজ অনুসারে ওই ঘটনা ঘটেছিল গত মাসের চার তারিখে৷ তারপরে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের হলেও উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি অভিযুক্ত জিএস শাহিদ হাসান খানের বিরুদ্ধে। রাজ্যের শাসকদলের ছাত্র সংগঠনের নেতা হওয়ার সুবাদেই পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে না অভিযোগ উঠেছে নিগৃহীতার তরফ থেকে৷ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে লাগাতার খবর প্রকাশ হওয়ার পর চাপে পড়ে আজ তড়িঘড়ি আত্মসমর্পণ করে অভিযুক্ত জিএস৷ এমনকী নিজের পদ থেকেও অব্যহতি চাওয়া হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে৷

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com