সংবাদ শিরোনাম :
চুনারুঘাট হউক মাদক মুক্ত অনন্য এক উপজেলা

চুনারুঘাট হউক মাদক মুক্ত অনন্য এক উপজেলা

lokaloy24.com

বিশেষ প্রতিনিধি : সীমান্ত উপজেলা চুনারুঘাট। এ উপজেলার বিভিন্ন অপরাধের মধ্যে মাদকের আগ্রাসন অন্যতম। কালেঙ্গা থেকে সাতছড়ি পর্যন্ত ব্যাপক এলাকাজুড়ে ভারতীয় সীমান্ত এলাকা । এক দিকে রঘুনন্দন অণ্যদিকে তরপ হিল। মুছিকান্দির পূর্ব পাহাড়। পুরোটাই দূর্গম এলাকা। সংরক্ষিত বনাঞ্চল, চা বাগান । সমতল এলাকায় সীমান্তে কাটা তারের বেড়া। এসব মাদক কারবারীদের রোধ করতে পারেনা। যে কারনে চুনারুঘাটে মাদকের বিস্তার ছিল ভয়াবহ।
বিজিবি, পুলিশ মাদক পাচাররোধে নানামুখী তৎপরতা চালিয়েও যখন পাচারকারীদের নিয়ন্ত্রনে হিমসিম খাচ্ছিল, তখনই চুনারুঘাট পুলিশ মাদক ও পাচারকারীদের নিমূলের শপথ নেয়। যে করেই হউক মাদকের আগ্রাসন বন্ধ করতে হবে।

lokaloy24.com

চুনারুঘাট থানার ও সি পরিদর্শক শেখ নাজমুল হক “ পুলিশ ই জনতা  জনতাই পুলিশ ” শ্লোগানকে সামনে নিয়ে তাঁর অধীনস্থ সকল অফিসার ও সদস্যদের নিয়ে মাঠ নামেন। রাতদিন একাধাওর ডিউটি করে সাধারন মানুষ ও জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করে অভিযান শুরু করেন। একে একে ধরা পড়ে চিন্থিত মাদক ব্যবসায়িরা। উদ্ধার করা হয় বিভিন্ন জাতের মাদক। ওসি শেখ নাজমুল হকের এক মাসের অভিযানেই প্রায় ১৫লাখ টাকার মাদক উদ্ধার করা হয়। এতে ৪ মন গাঁজা, প্রায় হাজার খানেক পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ বিভিন্ন ব্যান্ডের মদ। গ্রেপতার করা হয় চিন্থিত ৪৬ জন মাদককারবারীকে। এ সংক্রান্ত মামলা হয় ২৩টি। এতেই অভিযান থেমে যায়নি চলছে নিযমিত তৎপরতা।

গত ১৫ জুলাই ওসি শেখ নাজমুল হক থানার সকল অফিসার ও সদস্যদের নিয়ে মাদক নিমূলে শপথ গ্রহন করেন। সকল ষ্টাফদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে জনপ্রতিনিধি ও সাধারন মানুষের সহায়তায় মাদক পাচারকারী ,ব্যবসায়ী ও মাদক উদ্ধারে তৎপর হয়ে উঠেন । অভিযানে চিন্থিত চোরাকারবারী সহ বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধারে সক্ষম হন।

lokaloy24.com

lokaloy24.com

চুনারুঘাট থানায় কোন পুলিশ ফাঁড়ি বা তদন্ত কেন্দ্র নেই । সমগ্র উপজেলা থানা পুলিশকেই সামলাতে হয়। শুধু মাদকের আগ্রাসন নয় , নিত্যদিন ঘটছে ভিন্ন ভিন্ন ধরনের অপরাধ। ব্যাপক এলাকা, কোন কোন অঞ্চল এখনো যাতায়াতের পথ তেমন সুগম নয়। সীমিত সংখ্যক ফোর্স নিয়েই সামলাতে হয়। মাদক ও কারবারীদের বিরুদ্ধে অভীযানের যে টুকু সফলতা তা তাঁর একার নয় । অধীনস্থ ষকল অফিসার ও সদস্যদের দায়িত্ববোধ ও আন্তরিকতাই এর ফসল । তিনি বলেন, সাধারন মানুষ , জনপ্রতিনিধি , স্থানীয় সাংবাদিক ও সচেতন মহলের সহযোগিতা এ অভিযানে গতি এনে দিয়েছে।

চুনারুঘাট থানাকে মাদকমুক্ত করতে তাঁর এ অভিযান অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যাক্ত করে তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেন , সকল মহলের পরামর্শ , সহযোগিতা পেলে চুনারুঘাট থেকে মাদক নির্বাসন দিতে তিনি বদ্ধপরিকর।
এ বিষয়ে কথা হয় , গাজীপুর ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর খানের সাথে । তিনি বলেন চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক মাদক নিমূলে যে অভিযান শুরু করেছেন তা নিসন্দেহে প্রশংসনীয় । এভাবে অভিযান অব্যাহত থাকলে মাদক নির্মুল  দুসাধ্য  কিছু নয় । তবে পুলিশের এ অভিযানে উপজেলার সকল জনপ্রতিনিধি সহ সচেতন মহলের সহযোগিতা করা গুরত্বপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি।

অপর দিকে আসাম পাড়া বাজার , জারুলিয়া বাজার,আমুরোড ও সাদ্দাম বাজার এলাকার ব্যবসায়ী সহ সাধারন মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায় , বর্তমান ওসি শেখ নাজমুল হকের নেতৃত্বে মাদক নির্মূলের যে অভিযান চলছে তা দেখে মাদক কারবালীদের মধ্যেআতংক সৃষ্টি হয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকলে মাদক ও মাদক পাচারকারীদের তৎপরতা বন্ধ হয়ে যাবে। তাদের অভিমত এঅভিযান অব্যাহত থাকুক , সাধারনের মনেুষের দাবী, চুনারুঘাট হউক মাদক মুক্ত অনন্য এক উপজেলা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com