কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি

কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি

কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি
কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্র মুতাসসিম বিন মাজেদ ওরফে হৃদয়কে (১৪) অপহরণ ও হত্যা মামলায় তিনজনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় জেলা দায়রা ও জজ আদালতের (নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল) বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- শহরের কালিশংকরপুর এলাকার গাফফার খানের ছেলে সাব্বির খান, হাউজিং এ ব্লকের আজম আলীর ছেলে হেলাল উদ্দিন ড্যানী ও ভেড়ামারা উপজেলার দশমাইল ক্যানেল পাড়ার মৃত মোসলেম শেখের ছেলে আব্দুর রহিম শেখ ওরফে ইপিয়ার। রায় ঘোষণার সময় প্রধান আসামি সাব্বির খান উপস্থিত ছিলেন। বাকি দুই আসামি পলাতক রয়েছেন।

হত্যার আগে হৃদয়কে অপহরণ করা হয়েছিল। তাকে অপহরণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামিকেই যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সালের ২৩ মে সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া শহরতলীর মোল্লাতেঘরিয়া পূর্বপাড়া এলাকা থেকে জিলা স্কুলের ৮ম শ্রেণির ছাত্র হৃদয়কে অপহরণ করা হয়।  অপহরণের  দিন পর অপহরণকারীরা হৃদয়ের মা তাসলিমা খাতুনের কাছে ফোন করে ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। পরবর্তীতে ২ লাখ টাকা মুক্তিপণের বিনিময়ে অপহরণকারীরা হৃদয়কে ছেড়ে দিতে সম্মত হয়। পরে ২ জুন গোপনে নির্দিষ্ট স্থানে ২ লাখ টাকা পৌঁছে দেয় হৃদয়ের মা তাসলিমা খাতুন। তারপরও কথামত অপহরণকারীরা হৃদয়কে ফেরত না দিলে হৃদয়ের মা বাদী হয়ে কুষ্টিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

এ ঘটনায় পুলিশ ১০ জনকে আটক করে। আটককৃতদের তথ্যনুযায়ী ৩ অক্টোবর সন্ধ্যায় সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে কুষ্টিয়া হাউজিং এলাকা থেকে আজব আলীর ছেলে অপহরণকারী হেলাল উদ্দীন ওরফে ড্যানীকে আটক করে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীতে হৃদয়কে অপহরণ করার কথা স্বীকার করে জানায়, ভেড়ামারার ১০ মাইল এলাকার মোসলেম শেখের ছেলে আব্দুর রহিমের মাধ্যমে অপহৃত হৃদয়কে হত্যা করে ভেড়ামারা-কুষ্টিয়া মহাসড়কের ১০ মাইল নামক স্থানে ফখরুলের ইটভাটার পাশে মিজানুর রহমানের জমিতে লাশ পুতে রাখা হয়েছে। পরে পুলিশ ওই স্থানে অভিযান চালিয়ে হৃদয়ের গলিত লাশ উদ্ধার করে।

কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি  আকরাম হোসেন দুলাল জানান, পুলিশের দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনে আদালত দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানি শেষে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তিনজনকে সাজা দিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com