‘কারাবন্দি নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম, ক্ষমা ও ক্ষমতা দুটোই পাচ্ছেন!

‘কারাবন্দি নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম, ক্ষমা ও ক্ষমতা দুটোই পাচ্ছেন!

রাষ্ট্রীয় ক্ষমা পেতে যাচ্ছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। ছবি : রয়টার্স

অনলাইন ডেস্ক: সদ্য শপথ নেওয়া মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, ‘কারাবন্দি নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমা করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ এর আগে বিরোধী জোটের নেতৃত্ব নেওয়ার সময়ই মাহাথির চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর আনোয়ারের মুক্তি নিশ্চিত করে দুই বছরের মধ্যে তাঁর হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়ার।

বন্দি অবস্থায় হাসপাতাল থেকে জোটের নেতা মাহাথির মোহাম্মদের শপথ অনুষ্ঠান দেখেছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। গতকাল শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে তাঁর মুক্তির খবর জানালেন ৯২ বছর বয়সি নতুন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। সংবাদ মাধ্যম সিএনএন এই খবর জানিয়েছে।

মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, ‘রাজা আভাস দিয়েছেন তিনি শিগগির আনোয়ার ইব্রাহিমকে মুক্তি দিতে ইচ্ছুক। আমরা তাঁর পূর্ণাঙ্গ ক্ষমার ব্যাপারে প্রক্রিয়া শুরু করব। ক্ষমা পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মুক্তি পাবেন আনোয়ার। মুক্তি পেয়ে উপনির্বাচনে জিতলে তিনিই হবেন পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী।’

এদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, আনোয়ার ইব্রাহিমের স্ত্রী ওয়ান আজিজাহ ওয়ান ইসমাইল বলেছেন, ‘কয়েকদিনের মধ্যেই তাঁর স্বামীকে মুক্ত করা হবে।’ তিনি জানান, এক সপ্তাহের মধ্যেই রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা করা হবে আনোয়ার ইব্রাহিম।

আনোয়ার ইব্রাহিম ও মাহাথির মোহাম্মদ এক সময়ে মিত্র ছিলেন। কিন্তু রাজনৈতিক মত পার্থক্যের জেরে মাহাথির ১৯৯৮ সালে উপপ্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে আনোয়ার ইব্রাহিমকে বরখাস্ত করেন। মাহাথির কেবল তাঁকে বরখাস্তই করেননি, তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও সমকামিতার অভিযোগ এনে তাঁকে কারাগারে ঢোকান। আটক হওয়ার সময় দেশটিতে মাহাথির পরবর্তী সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ হিসেবে ভাবা হতো আনোয়ার ইব্রাহিমকে।

এসব মামলায় ছয় বছর কারাভোগের পর মুক্তি পেয়ে ‘পাকাতুন হারাপান’ জোট গঠন করে ২০১৩ সালে নির্বাচনও করেছিলেন ইব্রাহিম। কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় ক্ষমতায় আসতে পারেননি তিনি।

ওই নির্বাচনে জিতে নাজিব রাজাক ক্ষমতায় আসার পর ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে মাহাথিরের মতো একই অভিযোগ এনে তাঁকে কারারুদ্ধ করেন। আনোয়ার ইব্রাহিম কারাগারে থাকলেও তাঁর ২০ বছরের গণতান্ত্রিক সংগ্রামকে দমিয়ে রাখা যায়নি।

নাজিব রাজাককে হটাতে অবসর ভেঙে আধুনিক মালয়েশিয়ার রূপকার মাহাথির পাকাতুন হারাপান জোটে যোগ দিয়ে ইব্রাহিমের মিত্রে পরিণত হন। নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সৃষ্টি করেন অনন্য ইতিহাস।

রাজার কাছ থেকে ক্ষমা ও কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর, মালয়েশিয়ার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর আসনে আনোয়ার ইব্রাহিমকে দেখার অপেক্ষায় আছেন তাঁর সমর্থকরা।

গত বুধবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ১৯৫৭ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা ন্যাশনাল ফ্রন্টের পতন হলো। এক সময় এই জোট থেকেই প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন মাহাথির। বর্তমানে ওই জোটের নেতৃত্বে আছেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক।

সরকারি ফলাফলে দেখা গেছে, মাহাথিরের নেতৃত্বাধীন জোট ‘অ্যালায়েন্স অব হোপ’২২২টির মধ্যে ১১৩টি আসন নিশ্চিত করেছে। আর ৭৯টি আসন পেয়েছে নাজিব রাজাকের জোট।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com