‘এরশাদকন্যা’র বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

‘এরশাদকন্যা’র বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

‘এরশাদকন্যা’র বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা
‘এরশাদকন্যা’র বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

লোকালয় ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের পালিতা কন্যা ও জাতীয় মহিলা পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক অনন্যা হুসেইন মৌসুমীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) সকালে সোনারগাঁও থানায় মামলাটি করা হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নারায়ণগঞ্জ জেলায় এটাই কোনো প্রথম মামলা।

মৌসুমীর বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য (এমপি) লিয়াকত হোসেন খোকার অনুসারী হিসেবে পরিচিত স্থানীয় উপজেলা ছাত্র সমাজের সভাপতি ফজলুল হক।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, মৌসুমী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে জাপা মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে জড়িয়ে বেশ কয়েকটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। এ ধরনের মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে মানহানির অভিযোগে এ মামলা করা হয়েছে।

একই সঙ্গে এ ধরনের লেখায় জাতীয় পার্টির মানহানি, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও আইন শৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে বলেও দাবি করেন মামলার বাদী।

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সোনারগাঁও থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিম মিয়া। তিনি বলেন, অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

দলীয় জানা যায়, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে সোনারগাঁওয়ে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পান উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন। আর জাতীয় পার্টি থেকে একই আসনে মনোনয়ন পান বর্তমান এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা।

ওই নির্বাচনে মহাজোটের শরিক দল জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দিলে আওয়ামী লীগের মোশারফ হোসেন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। ফলে বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় এমপি হয়ে যান জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা

নেতাকর্মীদের ভাষ্য, এমপি হওয়ার আগে এলাকায় খোকাকে কেউ-ই চিনতেন না। দুর্দিনে দলের হাল ধরেছিলেন এরশাদের পালিত কন্যা মৌসুমী। ওই সময় বিভিন্ন এলাকায় বাড়ি বাড়ি ঘুরে জাতীয় পার্টির কর্মী সংগ্রহ করেন তিনি। পাশাপাশি কমিটিও গঠন করে দেওয়া হয়। কিন্তু ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পাননি। এমনকি গত পাঁচ বছরে এমপি খোকার জন্যে সোনারগাঁওয়ের রাজনীতিতে সাংগঠনিক কাজ করতে পারেননি তিনি। গত নির্বাচনের কয়েক মাসের মাথায় পার্টির স্থানীয় কার্যালয়ে হামলার শিকার হন মৌসুমী।

ওই সময় থানায় অভিযোগ দিলেও মামলা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেন এই নেত্রী। এরপর তিনি কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে গত ৭ সেপ্টেম্বর এলাকায় নির্বাচনী জনসংযোগ করছেন তিনি। মৌসুমীর দাবি, বাবা এরশাদ তাকে সবুজ সংকেত দিয়ে পার্টির পক্ষে কাজ করার জন্য মাঠে নামিয়েছেন। আর সে অনুযায়ী কাজ করছেন তিনি।

এ আসন থেকে লাঙল প্রতীকে মৌসুমী ও এমপি খোকা দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com