সংবাদ শিরোনাম :
চুনারুঘাটে কওমী-সুন্নী মুখোমুখি ; আহলে সুন্নাতের কর্মসূচিতে বাঁধা। । আজ জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী । লন্ডনে থানার ভেতরে পুলিশ অফিসারকে গুলি করে হত্যা । বানিয়াচংয়ের কুখ্যাত ডাকাত ওয়াদুদ শ্রীমঙ্গলে মাদকসহ গ্রেফতার।মাদক মামলায় কারাগারে প্রেরন। আজমিরীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন, প্রেমিকজুটি আটক বানিয়াচংয়ের কুখ্যাত ডাকাত ওয়াদুদ শ্রীমঙ্গলে মাদকসহ গ্রেফতার ব্যবহৃত কনডম বিক্রি করতো কারখানাটি! ৩ লাখ পিস জব্দ হবিগঞ্জে পিবিআই কতৃক অপহরণের সাজানো নাটকের রহস্য উন্মোচন চুনারুঘাটে চা শ্রমিক কন্যা ধর্ষণের সঠিক তদন্ত চায় নালুয়া বাগানবাসী । আবারো কি লকডাউন হবে বাংলাদেশ ।
এক তরুণীকে ধর্ষণ করেন ১৪৩ জন!

এক তরুণীকে ধর্ষণ করেন ১৪৩ জন!

পঁচিশ-বছর বয়সী এক নারী পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন তাকে অন্তত ১৪৩ ব্যক্তি ধর্ষণ করেছেন। তাদের মধ্যে আছেন রাজনৈতিক নেতা থেকে শুরু করে ছাত্র ইউনিয়নের নেতা, সংবাদকর্মী অনেকেই। দীর্ঘদিন ধরে তিনি এই ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।
এই ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ ভারতের হায়দ্রাবাদ শহরে। নারীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে হায়দ্রাবাদ পুলিশ।
পাঞ্জাগুট্টা থানার ওসি এম. নিরঞ্জন রেড্ডি বলেন, ‘ওই যুবতী ৪২ পাতার লিখিত অভিযোগ নিয়ে এসেছিলেন। তার অভিযোগপত্র দেখে খুবই আশ্চর্য হয়েছিলাম। কিন্তু তার সঙ্গে কথা বলে আমরা নিশ্চিত যে ওই যুবতীর কোনও মানসিক সমস্যা নেই। সেজন্যই অভিযোগ আমলে নিয়ে তদন্ত শুরু করেছি আমরা। শনিবার আমরা ওই নারীর বয়ান রেকর্ড করছি। তার শারীরিক পরীক্ষাও করা হবে। আশা করছি আগামী দিন দুয়েকের মধ্যে কিছু তথ্য প্রমাণ আমরা জোগাড় করতে পারব। যার ভিত্তিতে পরবর্তী তদন্ত এগোবে।’
ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী ধর্ষণ, নারীর শ্লীলতাহানি, আঘাত করা – এইসব ধারায় যেমন মামলা রুজু হয়েছে, একই সঙ্গে তপশিলী জাতি ও উপজাতিদের নির্যাতন রোধ আইনেও মামলা করা হয়েছে।
অভিযোগ পত্রে ওই নারী লিখেছেন যে ২০০৯ সালে খুব কম বয়সে তার বিয়ে হয়। তার কয়েক মাস পর থেকেই শারীরিক নির্যাতন শুরু করে শ্বশুড়বাড়ির লোকজন। প্রায় ন’মাস ধরে যৌন নির্যাতন সহ্য করার পরে ২০১০ সালে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয় এবং তিনি বাপের বাড়িতে ফিরে গিয়ে কলেজে ভর্তি হন।
তারপর থেকেই রাজনৈতিক নেতা, ছাত্র নেতা, সংবাদকর্মী, চলচ্চিত্র জগতের মানুষ নিয়মিত তাকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন ওই যুবতী। অভিযোগপত্রে তিনি ১৩৯ জনের নাম উল্লেখ করেছেন, আর বাকি চারজনের নাম মনে করতে পারেন নি ওই নারী।
তিনি অভিযোগ করেন, শারীরিক সম্পর্কের ছবি তুলে তা সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্তরা তাকে ভয় দেখিয়ে দীর্ঘদিন চুপ করিয়ে রেখেছিল বলেও জানিয়েছেন তিনি।
সূত্র: বিবিসি

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com