এই নির্বাচনে যাওয়া বিএনপির জন্য মোটেও সম্ভব নয় : ফখরুল

এই নির্বাচনে যাওয়া বিএনপির জন্য মোটেও সম্ভব নয় : ফখরুল

এই নির্বাচনে যাওয়া বিএনপির জন্য মোটেও সম্ভব নয় : ফখরুল
এই নির্বাচনে যাওয়া বিএনপির জন্য মোটেও সম্ভব নয় : ফখরুল

লোকালয় ডেস্কঃ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘তারা কাটাছেড়া করে নিজের ইচ্ছে মত যে সংবিধান তৈরি করেছে, সেটা জনগণের কাছে মোটেও গ্রহণযোগ্য না। আর এই সংবিধানের দোহাই দিয়েই তারা নির্বাচনের কথা বলছে। এই নির্বাচনে যাওয়া মোটেও সম্ভব নয়।’

শুক্রবার যুবদলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ কথা বলেন বিএনপি নেতা। যুবদলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রয়াত রাষ্ট্রপতির কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একতরফাভাবে নির্বাচন করতে চায়। অন্যান্য দল যাতে নির্বাচনে না আসে, সেই ব্যবস্থা করছে তারা। ৫ জানুয়ারির মত আরেকটা নির্বাচন করে তারা ক্ষমতায় যেতে চায়।

মির্জা আলমগীর বলেন, গত কয়েক বছরে আওয়ামী লীগের লক্ষ্যটা হচ্ছে যে, বিরোধী দলগুলোকে বাইরে রেখে তারা নির্বাচনে যেতে চায়। এজন্য বাংলাদেশের গণতন্ত্রে যার অবদান সবচেয়ে বেশি তাকে (বেগম খালেদা জিয়া) জেলে নিয়েছে এবং বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারারুদ্ধ করছে।

তিনি বলেন, বর্তমান ক্ষমতাসীনরা দেশে পুরোপুরিভাবে ফ্যাসিবাদ প্রতিষ্ঠিত করেছে। তাদের লক্ষ্যই হচ্ছে একদলীয় শাসন-ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করা। সেই লক্ষ্যই তারা চলছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা বলেছি, নির্বাচন কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ। সরকার যা চাইছে, তারা তাই করছে। এই নির্বাচন কমিশনের অধিনে যে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না, তা আমরা বারবার বলেছি। এটা শুধু বিশ্বাসের কথা নয়, এটাই বাস্তবতা। সুতরাং বর্তমান নির্বাচন কমিশন কখনোই একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে সক্ষম হবে না।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে যুবদলের নেতাকর্মীরা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে যুবদলের শত শত নেতাকর্মী সকাল থেকেই চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়াউর রহমানের সমাধি চত্বেরে এসে জড়ো হন। তারা জাতীয় সংসদ ভবনের উত্তর পাশে মূল রাস্তাতেই পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। ওই রাস্তা দিয়ে সমাধিতে পৌঁছানোর চন্দ্রিমা উদ্যানের সেতুমুখী কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।

পরে নেতাকর্মীরা দলবদ্ধ হয়ে লেকের পূর্ব পাশ দিয়ে সমাধি চত্বরে প্রবেশ করেন।

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুবদল কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুল ইসলাম নীরব সহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com