এই কারাগারের চাবি থাকে বন্দীদের হাতেই!

এই কারাগারের চাবি থাকে বন্দীদের হাতেই!

এই কারাগারের চাবি থাকে বন্দীদের হাতেই!
এই কারাগারের চাবি থাকে বন্দীদের হাতেই!

লোকালয় ডেস্কঃ  ব্রাজিলের কারাগার ভেঙে বন্দীদের পালানোর খবর প্রায়ই শোনা যায়। এ ছাড়া কারাগারের ভেতর প্রায়ই লেগে থাকে বন্দী সংঘর্ষ। এসব ঘটনায় অনেক সময় বন্দীদের মৃত্যুর খবরও পাওয়া যায়।

জনসংখ্যার দিক থেকে ব্রাজিল বিশ্বে প্রথম সারিতেই রয়েছে। আর বন্দীদের সংখ্যায় বিশ্বে চতুর্থ স্থানে রয়েছে দেশটি। কিন্তু ব্রাজিলের একটি কারাগার রয়েছে, যা একেবারে ভিন্ন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রাজিলের সংশোধনাগারের সঙ্গে সম্পৃক্ত একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার পরিচালক ফেরেইরা। অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য প্রোটেকশন অব অ্যাসিস্ট্যান্স টু দ্য কনভিকটেড (এপিএসি) যে কারাগারটি চালায় তারা অন্য রকম ভাবতে শুরু করে। ফেরেইরার ১৯৮০ সালে ব্রাজিলের একটি সংশোধনাগারে গেলে ভাবনাটি মাথায় আসে তার। সেই ভাবনাটিই বাস্তবায়ন করলেন তিনি।

কারাগারটিতে বন্দীদের কাছেই থাকে তাদের সেলের চাবি। ফেরেইরা বলেন, ‘চাবি আসলে বিশ্বাসের প্রতীক। তাই চাবি তুলে দেওয়া হয়েছে তাদের কাছে।’

কারাগারটিতে রয়েছে প্রাথমিক শিক্ষার ব্যবস্থা। দেওয়া হচ্ছে কারিগরি প্রশিক্ষণ; যাতে এই কারাগার থেকে বের হয়ে কোনো কাজ করতে পারেন বন্দীরা।

এ ছাড়া কারাগারটিতে ক্রম অনুসারে নয়, ডাকা হয় নাম ধরে। কোনো গার্ড বা বন্দুক নেই এই কারাগারে। এখানে যারা থাকেন তারা শুধু ঘুমানোর সময় কারাগারের ঘরে ফেরেন; বাকি সময় কাজ, পড়াশোনা ও নিজের কাজ নিয়েই থাকেন তারা।

২০১৭ সালে ব্রাজিলের একটি কারাগারে দুটি প্রতিদ্বন্দ্বী শিবিরে বন্দী সংঘর্ষে মোট ৫৬ জন প্রাণ হারিয়েছিলেন। এরপরই এমন ভাবনা এপিএসির।

কারাগারটিতে কুখ্যাত অপরাধীদের ডাকা হয় ‘রিকভারিং পার্সন’ হিসাবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com