সংবাদ শিরোনাম :
ঈদুল আযহায় আইএস’র হামলার পরিকল্পনা; পুলিশের সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি

ঈদুল আযহায় আইএস’র হামলার পরিকল্পনা; পুলিশের সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি

জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনার কথা জানতে পেরে দেশব্যাপী কড়া সতর্কতা নিচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ। এ বিষয়ে দেশের সকল ইউনিটে চিঠি পাঠিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। সদর দফতরের এআইজি (অপারেশনস-১) সাইদ তারিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এই চিঠিটি ইস্যু করা হয় দুইদিন আগে। তাতে বলা হয়, গোয়েন্দা তথ্য পর্যালোচনায় জানা গেছে, তথাকথিত আইএস আসন্ন ঈদুল আযহা সামনে রেখে কথিত “বেঙ্গল উলায়াত” ঘোষণার উদ্যোগ নিয়েছে। আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক ঘটনা প্রবাহ বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, সাধারণত বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলার মাধ্যমেই “বেঙ্গল উলায়াত” ঘোষণা করা হয়। এই অবস্থায় আইএস’র দেশীয় অনুসারী নব্য জেএমবির সদস্যরা হামলা পরিচালনাসহ যেকোনো জঙ্গি হামলা বা বোমা হামলার মাধ্যমে হত্যাকাণ্ড সংঘটনসহ নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড করতে পারে। তাই, পুলিশের সকল ইউনিটকে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করে করে যথাযথ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক।

পুলিশের গোয়েন্দা তথ্য বলছে, হামলার সম্ভাব্য লক্ষ্যবস্তু পুলিশের কোনো টিম, স্থাপনা বা যানবাহন। এছাড়া, বিমানবন্দর, দূতাবাস বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, মিয়ানমারের দূতাবাস ভবন বা বিশেষ ব্যক্তি অথবা শিয়া-আহমদিয়া উপাসনালয়, মাজার কেন্দ্রিক মসজিদ, চার্চ, প্যাগোডা, মন্দির টার্গেট করা হতে পারে। হামলার দিন-তারিখ না উল্লেখ থাকলেও চিঠিতে সময়কাল ধরা হয়েছে, সকাল ৬-৭টা অথবা সন্ধ্যা ৭-১০টা। হামলাকারীর বয়স ১৫-৩০ বছরের মধ্যে হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হামলার সময় কী ধরনের অস্ত্র থাকতে পারে সে বিষয়েও পুলিশের গোপন চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এসব তথ্যের নিরিখে, পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটসহ জঙ্গিসংশ্লিষ্ট ইউনিটগুলোকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া উগ্রপন্থী বা তাদের সংগঠনের উপর নজরদারি বৃদ্ধি, পুলিশের সবাইকে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বজায় রাখা, পুলিশের গাড়ি-স্থাপনা খালি বা পরিত্যক্তভাবে ফেলে না রাখা, পুলিশের ভবনগুলোতে প্রবেশের সময় নিরাপত্তা ও পরিচয় নিশ্চিত করা, স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপর নজরদারি বৃদ্ধি করা, চেকপোস্টে তল্লাশি বাড়ানো, সন্দেহ হলে ব্যাগ-দেহ তল্লাশি করা, সন্দেহজনক এলাকায় ব্লক রেইড করতে সংশ্লিষ্ট ইউনিটগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ সদর দফতর।

চিঠিতে সবশেষে উল্লেখ করা হয়, সকল ইউনিট প্রধানগন যেন এসব নির্দেশনা গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করেন। এদিকে, উগ্রপন্থীদের কার্যক্রম নিয়ে রোববার বিকেল তিনটায় নিজ কার্যালয়ে এক সভা ডাকেন ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম। সেখানে তিনি, সকল কর্মকর্তাদের এসব বিষয়ে নির্দেশনা দেন। যমুনা নিউজের কাছে এই সভার সত্যতা স্বীকার করেছেন ডিএমিপর বেশ কয়েকজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

সূত্র-যমুনা টিভি

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com