আইসল্যান্ডে খুঁজে পাওয়া গেল ‘থরের হাতুড়ি’

আইসল্যান্ডে খুঁজে পাওয়া গেল ‘থরের হাতুড়ি’

আইসল্যান্ডে খুঁজে পাওয়া গেল ‘থরের হাতুড়ি’
আইসল্যান্ডে খুঁজে পাওয়া গেল ‘থরের হাতুড়ি’

লোকালয় ডেস্কঃ ভাইকিংদের বিষয়ে অনেকেই জানেন। তারা ছিল মূলত প্রাচীন জলদস্যু, ইউরোপের দেশগুলোতে দস্যুপনা চালাতো ৮ম থেকে ১১শ শতাব্দীতে।  বর্তমানে যে জায়গাটাকে ডেনমার্ক, নরওয়ে ও সুইডেন বলে আমরা চিনি, সে জায়গাটাকে স্ক্যান্ডিনেভিয়া বলা হতো এবং এখান থেকেই ভাইকিংদের উৎপত্তি। ভাইকিংদের সমসাময়িক এক নিদর্শন খুঁজে পাওয়া গেছে আইসল্যান্ডে, আর এই নিদর্শন হলো ভাইকিংদের দেবতা ‘থর’ এর হাতুড়ি।

শত শত বছর ধরে দক্ষিণ আইসল্যান্ডের এক খামারে পড়ে ছিলো এই হাতুড়ি। তবে তাকে হাতুড়ি না বলে হাতুড়ি আকারের লকেট বলাই ভালো। কয়েনের মতো ছোট, হাতুড়ির মত এই পাথরের লকেটটি থরের হাতুড়ির আদলে তৈরি করা হয়েছিল।  এই হাতুড়ি এবং আরও কিছু নিদর্শন পাওয়া যায় আইসল্যান্ডের ওই খামারে।  এসব নিদর্শন উদ্ধার করার পর প্রত্নতত্ত্ববিদরা মনে করছেন, খামারটি ৯০০ বছরের পুরনো।  ওই এলাকার স্থানীয় এক বাসিন্দা প্রথম এই বিষয়ে ধারণা দেন গবেষকদেরকে। ওই ব্যক্তির দাদার দাদা কিছু ভাইকিংদের জিনিস সংগ্রহ করেছিলেন। এটা জানার পর থেকেই ওই ব্যক্তি খামারে জিনিসপত্র খোঁজা শুরু করেন।

প্রত্নতত্ত্ববিদদের সাহায্যে খামার থেকে পাওয়া যায় ওই হাতুড়ি, ছুরি ধার দেওয়ার পাথর, লোহার গজাল ও একটি বাকল। এসব জিনিস পাওয়া যায় নরম মাটির নিচে। এছাড়াও খামারের নিচে একটি পাথরের ঘর আছে বলে তারা ধারণা করছেন। ওই এলাকায় লোহার জিনিসপত্র তৈরি করা হতো বলে মনে করেন প্রত্নতত্ত্ববিদ গার্ডার গাডমুন্ডসন।  সম্ভবত ওই এলাকা থেকেই লোহা আহরণ করতো ভাইকিংরা।

গবেষকরা ধারণা করছেন, থরের এই হাতুড়ি অপশক্তি থেকে মুক্তির জন্য তাবিজ-কবজ হিসেবে ব্যবহার করতো ভাইকিংরা। আইসল্যান্ডে এর আগেও পাথরের একটি হাতুড়ি পাওয়া গিয়েছিল। ভাইকিংদের দেবতাদের মাঝে বেশি জনপ্রিয় ছিল থর।  মূলত ভাইকিংদের কবরের ওপরে এই হাতুড়ির মতো আদলের লকেট রাখা হতো সৌভাগ্যের প্রতীক হিসেবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com